Breaking News
শ্রীপুরে জোরপূর্বক জমি দখলের অভিযোগ

শ্রীপুরে জোরপূর্বক জমি দখলের অভিযোগ

গাজীপুর প্রতিনিধিঃ

গাজীপুরের শ্রীপুরে জোরপূর্বক জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী পৌরসভার কেওয়া পূর্ব খন্ড গ্রামের শওকত আলী ছেলে মো: শরিফ শেখ বাদী হয়ে এমদাদ গং , মো:রাজু মিয়া গং সহ অজ্ঞাত নামা ৫/৬জন বিবাদীদের বিরুদ্ধে শ্রীপুর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।




ভুক্তভোগী শরিফ শেখ লিখিত অভিযোগে জানান, আমার পিতা ৭নং কেওয়া মৌজাস্থিত এস.এ খতিয়ান ৮২৭, ৩২১ আর.এস ১৩০৯, ১৩১০নং খতিয়ানে এস.এ দাগ নং ১৬৮২, ১৬৮৩ ও আর.এস ৪৪৫৭, ৪৫৭৮,৪৪৭২নং দাগে এজমালি জমির পরিমান ৩৮৭ শতাংশ পৈত্রিক ওয়ারিশ সূত্রে মালিক দখলকার নিয়ত হইয়া নিজ নামে খাজনা খারিজ করিয়া শান্তি পূর্ন ভাবে ভোগ দখল করিয়া আসিতেছেন। এমতাবস্থায় বিবাদীগন পরস্পর যোগসাজসে বর্ণিত জমি হইতে আমার পিতাকে বেদখল দেওয়ার জন্য বেশ কিছুদিন পূর্ব হইতে শত্রুতা পোষন করিয়া আমাদের প্রায়ই অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ খুন জখমের হুমকি দিয়া আসিতেছে। এমতাবস্থায় প্রথম ঘটনার তারিখ গত (১৫ ডিসেম্বর) সকাল অনুমান ১০.০০টার সময় উল্লেখিত বিবাদীগন দা, লাঠি, লোহার রড, ইটা, বালি, সিমেন্টে ইত্যাদি দেশীয় অস্ত্রে সন্ত্রে ও ঘর তৈরী সরঞ্জামাধী নিয়া বর্নিত জমিতে অনধিকার প্রবেশ করিয়া জবর দখলের উদ্দেশ্যে ঘর নির্মান করার চেষ্টা করলে আমি জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ এর ফোন করিয়া পুলিশ সহযোগিতা চাইলে শ্রীপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হইলে বিবাদীগন চলিয়া যায়।



পরে (১৬ ডিসেম্বর) সকালে বিবাদীগন পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে দা, লাঠি, লোহার রড, ইত্যাদি দেশীয় অস্ত্রে সন্ত্রে ও ঘর তৈরীর সরঞ্জামাধী নিয়া বর্নিত জমিতে অনধিকার প্রবেশ করিয়া কাজ শুরু করে। তখন আমি ও আমার পরিবারের লোকজন বিবাদীদের অন্যায় কাজে বাধা নিষেধ দিলে বিবাদীগন আমাদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজসহ মারপিট করিতে উদ্যত্ব হয় এবং প্রকাশ্যে হুমকি দেয় যে, আমি বা আমার পরিবারের লোকজন পুনরায় তাহাদের কাজে বাধা প্রদান করি তাহলে আমাদের মারপিটসহ খুন জখম করিয়া লাশ গুম করিয়া ফেলিবে, নিজেরা যে কোন প্রকার অঘটন ঘটাইয়া আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়া হয়রানী করিবে বলিয়া হুমকি দেয় এবং বর্ণিত জমি হইতে আমার পিতাকে বেদখল দিবে বলিয়াও হুমকি প্রদান করে।


শ্রীপুর থানার উপপরিদর্শক এস আই ফুরকান জানান,ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। সকল প্রকার কাজ বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছি।