Breaking News
কলাগাছের ভেলায় বাংলাদেশির মরদেহ পাঠালো ভারত

কলাগাছের ভেলায় বাংলাদেশির মরদেহ পাঠালো ভারত

আবু হাসান আকাশ, লালমনিরহাট প্রতিনিধি।

 দুর্গাপুর সীমান্তে কলাগাছের ভেলায় করে বাংলাদেশি এক যুবকের মরদেহ পাঠিয়েছে ভারত। শুক্রবার বিকালে আদিতমারী উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের কুমারটারী সীমান্তের ৯২৭ নম্বর মেইন পিলারের তিন নম্বর সাব পিলার এলাকা দিয়ে মরদেহটি পাঠানো হয়।


নিহতের নাম রফিকুল ইসলাম (২২)। তাকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। রফিকুল লালমনিরহাট সদর উপজেলার মোগলহাট ইউনিয়নের কর্ণপুর চওড়াটারী গ্রামের হায়দার পাগলার ছেলে বলে জানা গেছে।


বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও সীমান্তবাসীরা জানান, ভোরে কুমারটারী সীমান্তের ৯২৭ নম্বর মেইন পিলারের তিন নম্বর সাব পিলার এলাকা দিয়ে ভারতে অবৈধ অনুপ্রবেশ করে রফিকুল ইসলাম। দুপুরে তার গুলিবিদ্ধ মরদেহ কলাগাছের ভেলায় করে বাংলাদেশি সীমান্ত পার করেন এক ভারতীয় নাগরিক। পরে স্থানীয়রা রফিকুলের পরিচয় নিশ্চিত করে।


ভারতে পঞ্চায়েত নির্বাচনকে ঘিরে সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) কঠোর নজরদারী চালিয়ে যাচ্ছে। রফিকুল ইসলামকে গুলির ঘটনা সে কারণেই হতে পারে বলে মনে করেন স্থানীয়রা।


বিজিবি লালমনিরহাট ১৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোফাজ্জল হোসেন বলেন, ভারতীয় সীমান্তের ওপার থেকে একটি মরদেহ ভেসে এসেছে। এমন খবরে ঘটনাস্থলে কর্মকর্তাদের পাঠানো হয়েছে। ভারতের নির্বাচনের কারণে ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।


এর আগে গতকাল বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) সকালে দুর্গাপুরের দীঘলটারী গ্রামে একইভাবে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে বিজিবি সদস্যদের হাতে আটক হন দুই ভারতীয় নাগরিক। এদিন বিকেলে উভয় দেশের পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে ভারতীয়দের ফেরত দেন বিজিবি সদস্যরা। কয়েক ঘণ্টা পেরুতেই বাংলাদেশি যুবককে গুলি ও তার মরদেহ ভেলায় চড়িয়ে ফেরত পাঠানোয় সীমান্তে আতঙ্ক বিরাজ করছে।