Breaking News
বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামের জন্য নির্মান হচ্ছে “ন্যায় কুঞ্জ”

বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামের জন্য নির্মান হচ্ছে “ন্যায় কুঞ্জ”

বাগেরহাট প্রতিবেদকঃ
বাগেরহাট আদালত প্রাঙ্গণে বিচারপ্রার্থীদের বিশ্রামের জন্য নির্মাণ করা হচ্ছে ‘ন্যায়কুঞ্জ’।শনিবার (৩ জুন) দুপুরে বাগেরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালত প্রাঙ্গণে এই ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন হাইর্কোট বিভাগের বিচারপতি মোঃ খায়রুজ্জামান। এসময় সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ মোঃ রবিউল ইসলাম, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-১ এর বিচারক মোঃ সাইফুল ইসলাম, নারী ও শশিু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-২ এর বিচারক মোঃ মঈন উদ্দিন, চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ ওসমান গনী, পুলিশ সুপার কে এম আরফিুল হক উপস্থিত ছিলেন।

আইন মন্ত্রনালয়ের র্অথায়নে গনর্পূত বিভাগ প্রায় ৫৩ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মান করবে “ন্যায় কুঞ্জ” নামের এই বিশ্রামাগা ভবন। এই ভবনে ২ টি পয়নিস্কাশন কক্ষ, ১টি মাতৃদুদ্ধ কর্নার, ১টি ক্যান্টিন ও প্রয়োজনীয় ফ্যান থাকবে। এক সাথে একই সময়ে ৮০ থেকে ১০০ জন বিশ্রাম নিতে পারবে। আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে এই কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন গনপূর্ত বিভাগ বাগেরহাটের নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আবু জাফর সিদ্দিক।

ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন শেষে বিচারপরতি মোঃ খায়রুজ্জামান বলেন, প্রধান বিচারপতি মহোদয়ের অভিপ্রায়ে দেশের প্রতিটি আদালতে “ন্যায় কুঞ্জ” নামের বিশ্রামাগার স্থাপন প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় বাগেরহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালতে “নায় কুঞ্জের” ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হল। এই বিশ্রামাগারে বিচারপ্রার্থীরা যেমন বিশ্রাম নিতে পারবেন। তেমনি বিভিন্ন আদালতে বিচারাধীন মামলাসমূহ, বিশেষ করে পুরাতন দেওয়ানী ও ফৌজদারী মামলাসমূহ নিস্পত্তিতে ভূমিকা রাখবে বলে মনে করেন এই বিচারপতি।

এরপর তিনি জেলা ও দায়রা জজ আদালতের কনফারেন্স কক্ষে বাগরেহাট জেলা ও দায়রা জজ আদালত এবং ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে র্কমরত বিচার বিভাগীয় র্কমর্কতাদের সাথে বিচারাধীন মামলাসমূহ নিস্পত্তি করার বিষয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।