৫ দিনেও উদ্ধার হয়নি তেলবাহী জাহাজ, পরিবেশ দূষণের আশংকা

সাব্বির আলম বাবু, ভোলাঃ
ভোলার মেঘনা নদীর তুলাতুলি এলাকায় দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজটি ৫ দিনেও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। গত সোমবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এর উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে। ডুবে যাওয়া কার্গোজাহাজ সাগর নন্দিনী-২ উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছে উদ্ধারকারী জাহাজ জোহুরা ও হুমায়ারা। পুলিশ, কোস্টগার্ড ও বিআইডব্লিউটিএ’র ৫০ সদস্যের ডুবুরি ও বিশেষজ্ঞ দল এ উদ্ধার কাজে কাজে অংশ নেয়। তবে, সকাল থেকে ঘন কুয়াশার কারণে উদ্ধার অভিযান কিছুটা বিলম্বিত হয়েছে বলে জানিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ। জাহাজটিকে পানির তলদেশ থেকে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করতে আরও সময় লাগবে বলে জানায় তারা। বিআইডব্লিউটিএ পরিচালক মো. শাজাহান এসব তথ্য নিশ্চিত করেন।

এদিকে পরিবেশ দূষণ থেকে রক্ষায় সকাল থেকেই কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের একটি দল ল্যামর মেশিন দিয়ে বিশেষ প্রযুক্তির ব্যবহার করে নদী থেকে তেল অপসারন করছে।

কোস্টগার্ড দক্ষিণ জোনের ল্যা. কমান্ডার আকিফ খান রিদম বলেন, নদীতে যেন নতুন করে আর কোনো তেল ছড়াতে না পারে সে লক্ষ্যে কোষ্টগার্ড সদস্যরা কাজ করে যাচ্ছে। তবে কোষ্টগার্ডের উদ্ধারকারী একটি বিশেষ সূত্র জানায়, জাহাজটি পানি ওপরে টেনে তোলার প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। আশা করা যায় আগামী কালের মধ্যেই জাহাজটি পানিতে ভাসানো সম্ভব হবে। পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-সচিব আবদুল হালিম বলেন, দুর্ঘটনা কবলিত জাহাজের তেল পানিতে মিশে গেছে, আমরা পানির নমুনা সংগ্রহ করে গবেষণাগারে পাঠিয়েছি, রিপোর্ট আসতে আরও ৫ দিন সময় লাগবে। রিপোর্ট হাতে পেলে প্রকৃত ক্ষতির পরিমাণ নিশ্চিত হওয়া যাবে।

এদিকে অতিদ্রুত জাহাজটি উদ্ধার করা না গেলে ভয়াবহ পরিবেশ দুষনের আশংকা করছেন স্থানীয় জেলে ও নদী পাড়ের মানুষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *