খালি স্ট্যাম্পে সই গ্রহন, ৫ হাজারে ৫ লাখ দাবী, টাকা দিতে না পেরে কৃষকের আত্ম-হত্যা

কে এম, রাশেদ কামাল, মাদারীপুর প্রতিনিধিঃ
সুদের অতিরিক্ত টাকা দিতে না পারায় বাবুল মল্লিক (৪৫) নামে এক কৃষক আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে মাদারীপুর জেলার ডাসার উপজেলায়। শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) সকালে বাড়ির পাশের একটি আমগাছ থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় ওই কৃষকের মরদেহ পাওয়া যায়। তিনি মাদারীপুর ডাসার উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নের চিত্তর মোড় এলাকার রসরাজ মল্লিকের ছেলে। এ ঘটনায় বাবুল মল্লিকের পরিবার থানায় মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানা যায়।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বছর তিনেক আগের কথা। সুদ কারবারি লিটন শিকদারের কাছ থেকে কৃষি জমিতে চাষের জন্য ৫ হাজার টাকা সুদে নিয়েছিলেন তিনি। টাকা নেয়ার সময় খালি স্ট্যাপে সই নেন সুদ কারবারি লিটন শিকদার।
তিন বছর পরে সেই সুদে আনা পাঁচ হাজার টাকা সুদে-আসলে পাঁচ লাখ হয়েছে দাবি করেন। বাবুল গরীব কৃষক হওয়ায় তিন বছরে সেই সুদের টাকা নিয়মিতভাবে পরিশোধ করতে পারেননি। এ জন্য বাবুলকে নিদারুণ চাপে রেখেছিলেন লিটন শিকদার। টাকা না পেয়ে সম্প্রতি সেই খালি স্ট্যাম্পে পাঁচ হাজার টাকার জায়গায় পাঁচ লাখ টাকা বসিয়ে বাবুল মল্লিকের দুই বিঘা কৃষিজমি দখল করেন সুদ কারবারি লিটন। এতে মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন বাবুল। পরে শুক্রবার ভোররাতে নিজ বাড়ির পাশে থাকা একটি আমগাছের ডালের সাথে গলায় দড়ি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন ওই কৃষক।

বাবুল মল্লিকের স্ত্রী বুলবুলি মল্লিক বলেন, কৃষি কাজের জন্য লিটন শিকদারের থেকে টাকা সুদে নিছিল আমার স্বামী। আমরা গরীব মানুষ, সুদের সেই পাঁচ হাজার টাকা দিতে পারি নাই। কিন্তু সে পাঁচ হাজার টাকার জায়গায় পাঁচ লাখ বসাইয়া আমাদের দুই বিঘা জমি দখল করছে। এজন্য আমার স্বামী মনের কষ্টে আত্মহত্যা করছে। আমরা লিটন শিকদারের বিচার চাই।

এ ঘটনায় পর পরই এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন অভিযুক্ত লিটন শিকদার। এ বিষয়ে কথা বলার জন্য শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তার মুঠোফোনে একাধিকবার কল করলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

নবগ্রাম ইউপি চেয়ারম্যান দুলাল তালুকদার জানান, ‘ঘটনাটি আমি সকালে শুনেছি। তবে কী কারণে সে মারা গেছে সেটা জানতে পারিনি।’

এ ব্যাপারে ডাসার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব মো. হাসানুজ্জামান বলেন, ‘আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি। ভুক্তভোগী পরিবারের লিখিত অভিযোগ করলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *