সাবেক চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ

কে এম, রাশেদ কামাল, মাদারীপুর প্রতিনিধি:
মাদারীপুরে প্রতিবন্ধী কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে সাবেক এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে ভুক্তভোগীর পরিবার। গত বৃহস্পতিবার( ২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে মাদারীপুর সদর উপজেলার ছিলারচর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্তের নাম বাবুল সরদার। তিনি মাদারীপুর সদর উপজেলার ছিলারচর ইউনিয়নের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান।

ভুক্তভোগীর স্বজন ও পুলিশ সূত্র জানায়, ছিলারচর ইউনিয়নে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বাবুল সরদারের ভাড়া বাসায় দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছিলো ভুক্তভোগীর পরিবার। গতকাল পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা নিত্যদিনের কাজে বের হয়ে গেলে ঘরে একাই ছিলো ওই প্রতিবন্ধী কিশোরী। এসময় একা পেয়ে সুযোগ বুঝে ঘরে ঢুকে জোরপূর্বক মেয়েটিকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত। পরে মেয়েটির পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে আসার পরে বিষয়টি বুঝতে পেরে রাতে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

কিশোরীর বাবা বলেন, আমরা মেয়েটি বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। আমি শহরে একটা প্রতিষ্ঠানে কাজ করি, আমার স্ত্রীও একটি স্কুলে চাকুরী করে। আমরা কাজে বের হয়ে গেলে আমার মেয়েকে ঘরে একা পেয়ে বাবুল চেয়ারম্যান নির্যাতন করেছে, আমরা তার ফাঁসি চাই।

নারী ও কিশোরীদের সংগঠন বসুন্ধরা সেবা সংস্থার সভাপতি লাইজু আক্তার বলেন, আমাদের সমাজে এর চাইতে জঘন্য কাজ হতে পারে না। একজন জনপ্রতিনিধির হাত থেকে প্রতিবন্ধী মেয়ে রেহাই না পায়, তাহলে নারীরা কোথায় নিরাপদে থাকবে। এই ঘটনায় প্রশাসনের কাছে একটাই দাবী, ঘটনায় সুষ্ঠু তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।

তবে ঘটনা অস্বীকার করে তিনি রাজনৈতিক ষড়যন্ত্রের শিকার বলে দাবী করেছেন অভিযুক্ত বাবুল সরদার। তিনি বলেন, ওই মেয়েটির পরিবার আমার বাড়িতে ভাড়া থাকে। তার বাবা বিদেশ যাবার কথা বলে আমার কাছে টাকা ধার চেয়েছিল। আমি ওই টাকা না দেয়ায় আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা হচ্ছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাদারীপুর সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনোয়ার হোসেন চৌধুরী জানান, আমরা এ ঘটনায় একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। ভিকটিম আমাদের হেফাজতে আছে। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা চললাম রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *