পবিপ্রবিতে বাঁধনের নবীনবরণ ও সংবর্ধনা প্রদান

আবু হাসনাত তুহিন, পবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ
পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে
(পবিপ্রবি) বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিট (বরিশাল জোন) এর নবীনবরণ, ডোনার সম্মাননা ও বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ২০২২ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২৪ সেপ্টেম্বর (শনিবার) সন্ধ্যা ৬ টায় প্রশাসনিক ভবনের সামনে বৃক্ষরোপণের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়। প্রায় শতাধিক গাছ ক্যাম্পাসের বিভিন্ন স্থানে রোপণ করে বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিট। বৃক্ষরোপণ শেষে টিএসসিতে বাঁধনের নতুন অফিস ২০৮ নং রুমের উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত। রুম উদ্বোধন শেষে পবিপ্রবির অডিটোরিয়ামে নবীনবরণ, ডোনার সম্মাননা ও বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠান ২০২২ অনুষ্ঠিত হয়।

মোঃ এহসানুল হক পাভেলের সভাপতিত্বে ও মোঃ জাহিদ হোসেন শোয়েবের সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিটে প্রধান শিক্ষক উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. সন্তোষ কুমার বসু সহ বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিটের শিক্ষক উপদেষ্টা, ছাত্র উপদেষ্টা, বরিশাল জোনের সাধারণ সম্পাদক, জোনাল প্রতিনিধি, নবীন ও প্রবীণ বাঁধন কর্মী।

বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিটের জোনাল প্রতিনিধি শাকিল হোসেন বাপ্পি বলেন,” বাঁধন একটা অরাজনৈতিক, অলাভজনক সংগঠন। মানবসেবায়ই এই সংগঠনের উদ্দেশ্য। বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিট (বরিশাল জোন) বিশেষ করে বরিশাল বিভাগের রক্তের চাহিদার সিংহভাব যোগাড় করে থাকে। ”

বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিটে সাবেক সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান বলেন, ” সিনেমায় সমাজের সমসাময়িক রুপ তুলে ধরা হয়। একসময় দেখতাম নায়ক জসিম রক্ত নিয় দৌড়াচ্ছে কারো জীবন বাঁচাতে। এখন রক্ত নিয়ে দৌড়াতে হয়না বাঁধন কর্মীরা রক্ত দেওয়ার জন্য রুগির কাছে ছুটে যায়। ”

বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিটে প্রধান শিক্ষক উপদেষ্টা পবিপ্রবির প্রক্টর অধ্যাপক ড. সন্তোষ কুমার বসু উপাচার্যকে বাঁধনের নতুন অফিসের ব্যাবস্থা করে দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, ” আমি নিজেও ৬ বার রক্ত দিয়েছি। একটা মানুষের যখন রক্তের প্রয়োজন হয়, তখন সে অসহায় হয়ে পড়ে। তাই তোমার যত বেশি পারো এদের পাশে দাঁড়াবে। মানবসেবায় কখন কার্পণ্য করবে না।”

বাঁধন পবিপ্রবি ইউনিটে প্রধান পৃষ্ঠপোষক পবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত বলেন, মানবসেবার মতো মহৎ কাজ আর নেই। মানবসেবা দূর করে ভেদাভেদ। তোমার সর্বদা নিজেকে মানবসেবায় নিয়োজিত রাখো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *