ভাঙ্গায় এক্সপ্রেসে ওয়ের শেষপ্রান্তে ও টোল প্লাজায় থেমে থেমে যানজট,অধিক ভাড়া নেওয়ার অভিযোগ, জরিমানা

মাহবুব পিয়াল,ফরিদপুর:
ভাঙ্গায় এক্সপ্রেস ওয়ের শেষপ্রান্তে ও বগাইল টোলপ্লাজায় শনিবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত দিনভর থেমে থেমে যানজট হয়েছে। ঢাকামুখী মানুষের স্রোত ছিলো সারাদিন।ভাঙ্গা থেকে সারা দিন ঢাকামুখী গাড়ির ভির ছিলো চোখে পড়ার মতো।

সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে এক্সপ্রেসওয়ের শেষপ্রান্তে ঢাকা -বরিশাল মহাসড়কের ভাঙ্গা বাজার বাসস্ট্যান্ড থেকে ভাঙ্গার চুমুরদী পর্যন্ত প্রায় ৫ কিলোমিটার সড়কে প্রায় দেড়ঘন্টা যানজট দেখা যায়।এ জট মাঝে মাঝেই মহাসড়কে এক-দেড় কিলোমিটার হয়েছে। ভাঙ্গার বগাইল টোলপ্লাজায় থেমে থেমে কয়েক দফা জট হয়েছে। শনিবার বিকাল সাড়ে ৪ টার দিকে ভাঙ্গা বগাইল টোলপ্লাজায় এসে দেখা যায় ১২ টি টোলবুথের মধ্যে ১০টি চালু রয়েছে।

মাদারীপুর থেকে ফরিদপুরগামী লোকালবাসের যাত্রী গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুর উপজেলার দিগনগর ইউনিয়নের ফতেপট্টি গ্রামের ফারুক মোল্লা(৫০) বলেন,আমি একঘন্টার উপরে ভাঙ্গার পূর্বসদরদী এলাকায় বাসে বসে আছি, দীর্ঘ জট।

মাদারীপুর থেকে ঢাকাগামী চন্দ্রা পরিবহনের এক যাত্রী বলেন,ভাঙ্গা এসে ঘন্টাখানেক বসে আছি।
মহাসড়কের ভাঙ্গা এলাকায় দায়িত্বপ্রাপ্ত এক পুলিশ সদস্য বলেন,আমরা মহাসড়ক যানজট মুক্ত রাখার চেষ্টা করছি।ঢাকার বেশকিছু গাড়ি ভাঙ্গায় এসে মহাসড়কের উপর ঘুরানো,সড়কের উপর পার্কিং করার কারনেই এ জট হচ্ছে।
ভাঙ্গার বগাইল টোলপ্লাজার প্রশাসনিক কর্মকর্তা আশিকুর রহমান বলেন,ভাঙ্গা টোলপ্লাজায় যানজট নেই।তবে ঢাকামুখী গাড়ির চাপ রয়েছে।অনেক গাড়ির চালক ভাংতি টাকা দিতে না পারায় মাঝে মাঝে আমাদের বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে।

অপরদিকে গত দুদিন যাবত ভাঙ্গা থেকে ঢাকায় বাস ভাড়া দ্বিগুণ নেওয়া হচ্ছিল।পদ্মাসেতু চালু হওয়ার পরদিন থেকে ভাঙ্গা থেকে ঢাকার বাসভাড়া জনপ্রতি ২০০-২৫০ টাকা নেওয়া হলেও গত শুক্রবার থেকে এ ভাড়া ৪০০-৫০০ টাকা নেওয়া হচ্ছিল। এ নিয়ে অনেক যাত্রীকে ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায়।
শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে ভাঙ্গা বাজার বাসস্ট্যান্ডে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালান।এ সময় ভাঙ্গা থেকে ঢাকাগামী বাসগুলোর অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের সত্যতা পান।দুই বাসের চালককে জরিমানা করেন।
ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ভাঙ্গা উপজেলার সহকারী কমিশনার এস এম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন,অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার কারনে ভাঙ্গা থেকে ঢাকাগামী ইলিশ ও প্রচেষ্টা পরিবহনের দুই চালককে ৪ হাজার টাকা করে আট হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *