ভোলায় গৃহবধুর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

ভোলা প্রতিনিধিঃ
ভোলা সদর উপজেলা ধনিয়া ইউনিয়নের দড়িরাম শংকর গ্রামে শিরিন (২০) আক্তার নামে এক গৃহবধূর গলায় ফাঁস দেওয়া ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে ভোলা সদর থানা পুলিশ। শনিবার (২ জুলাই) দুপুর ১টার দিকে এ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ভোলা সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনায়েত হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নিহত শিরিন আক্তার ওই গ্রামের মো. হাবিবুর রহমানের স্ত্রী। তাদের সংসারে কোনো সন্তান নেই। হাবিব পেশায় জেলে। শিরিন আক্তার চরফ্যাশন উপজেলার আলী আজমের মেয়ে। দুই বছর আগে পারিবারিকভাবে তাদের বিয়ে হয়।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে সদর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. জসিম উদ্দিন জানান, দুপুর আনুমানিক ১টার দিকে ওই গৃহবধূ গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঘরের আড়ার সঙ্গে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। সকাল ১০টা থেকে ওই ঘরে শিরিন আক্তার ও তাঁর ১০ বছর বয়সী এক ননদ ছিল। নিহতের স্বামী হাবিবসহ ঘরের অন্যান্য সদস্যরা কাজের উদ্দেশ্যে ঘরের বাহিরে ছিলেন। তাঁর শাশুড়ী ঘটনার সময় ভোলা সদর হাসপাতালে ছিলেন। দুপুর সাড়ে বারোটার দিকে ননদ পাশের বাড়িতে খেলাধুলা করতে যায়। ১টার দিকে বাড়িতে এসে দেখেন ঘরের সকল দরজা জানালা বন্ধ। অনেকক্ষণ ‘ভাবী ভাবী’ শব্দ করেও শিরিনের কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে ঘরের ভাঙা টিনের অংশ দিয়ে ঘরের মধ্যে তাকিয়ে দেখেন ভাবী শিরিন আক্তার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে ঘরের আড়ার সঙ্গে ঝুলছে। পরে তাঁর চিৎকারে আশ-পাশের লোকজন ছুটে গিয়ে থানায় খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ভোলা সদর হাসপাতালের মর্গে নিয়ে যায়। এসআই জসিম উদ্দিন আরও জানান, এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.