শেরপুরে বিদ্যুৎ স্পর্শ হয়ে ২জনের মৃত্যু

শাহাদাত হোসেন সোহাগ, শেরপুর জেলা প্রতিনিধি:
শেরপুরে পৃথক ঘটনায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও ২ জন। ৩০ জুন বৃহস্পতিবার শেরপুর শহরের সাকী অটোরাইস মিল ও শ্রীবরদী উপজেলা জানকিখিলা গ্রামে পৃথক ওইসব ঘটনা ঘটে। মৃতরা হচ্ছেন সদর উপজেলার পাকুড়িয়া ইউনিয়নের গণইভরুয়া গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩০) ও শ্রীবরদী উপজেলার জানকিখিলা গ্রামের জহির উদ্দিনের ছেলে শাজাহান মিয়া (৩২)।

আর আহতরা হচ্ছেন সদর উপজেলার গণইভরুয়া গ্রামের জয়নাল আবেদীনের ছেলে মো. নাজির মিয়া (২৬) ও একই গ্রামের জয়নাল মিয়ার ছেলে মো. রাজ্জাক মিয়া (৪২)।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে শেরপুর শহরের সাকী অটোরাইস মিলের ধানের বস্তা কাটার শ্রমিক সাইফুল ইসলাম, নাজির মিয়া ও রাজ্জাক মিয়াকে ময়লা পরিস্কারের জন্য মিলের চালের উপরে উঠতে বলে মিলের চালক। ওইসময় মিলের চাল আগে থেকেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট থাকায় প্রথমে সাইফুল মিয়া চালের উপরে উঠে বিদ্যুতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে নাজির ও রাজ্জাক চালের উপরে উঠলে তারাও বিদ্যুৎস্পৃষ্টে গুরুতর আহত হয়। পরে মিলের বৈদ্যুতিক সংযোগ বন্ধ করে অন্যান্য শ্রমিকরা তাদের উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

নিহতের শ্যালক আরাফাত রহমান জানান, সকাল বেলা প্রতিদিনের মতো সে কাজে আসছে। দুপুরে শুনি মিলের চালে উঠে কারেন্ট ধরে মারা গেছে। আমার বোন সাবিনা আট মাসের অন্তঃস্বত্বা। তার ভবিষ্যতটা কি হব এখন?

জেলা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের মেডিকেল অফিসার ডা. অমিয় জ্যোতি সাইফুল্লাহ জানান, সাইফুলকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়েছিল। বাকী দুইজনকে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাদের মধ্যে রাজ্জাক হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। তার চিকিৎসা চলছে। এ ব্যাপারে সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বন্দে আলী মিয়া জানান, ওই ঘটনায় পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এদিকে একইদিন সকালে শ্রীবরদী উপজেলার জানকিখিলা গ্রামে বাড়ির পাশে সেচ পাম্পের বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে শাজাহান মিয়া নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে শাজাহান মিয়া বাড়ির পাশে সেচ পাম্পে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গেলে তার ছেড়া থাকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে গুরুতর আহত হয়। পরে আশপাশের লোকজন তাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বিপ্লব কুমার বিশ্বাস বলেন, ওই ঘটনায় পরবর্তী আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.