অবশেষে হাতীবান্ধা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় অফিসের তালা খুলে দিলেন ইউএনও

লালমনিরহাট প্রতিনিধি:
সম্প্রতি লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দিয়ে বিদ্যালয় অফিসের তালা বন্ধ করে রাখেন, সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষক এমজি মোস্তফা। অবশেষে বিদ্যালয় অফিসের বন্ধ তালা খুলে দিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজির হোসেন।

জানাগেছে, উপজেলার হাতীবান্ধা আর্দশ উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্বাচিত এবং শিক্ষা বোর্ড দিনাজপুর কর্তৃক অনুমোদিত বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি সিনিয়র সাংবাদিক কাজী আলতাব হোসেন ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুস সোবহানকে, বেআইনি ভাবে বিদ্যালয় অফিসে ঢুকতে না দিয়ে দীর্ঘ ২ মাস যাবত প্রধান শিক্ষকের অফিস কক্ষটি তালা বন্ধ করে রাখেন,সাময়িক বরখাস্তকৃত প্রধান শিক্ষক এমজি মোস্তফা। তারপর কমিটির সভাপতি কাজী আলতাব হোসেন ও কমিটির সদস্যবৃন্দ সহ ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আব্দুস সোবাহান এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট অভিযোগ দেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল রবিবার হাতীবান্ধা উপজেলার নির্বাহী অফিসার নাজির হোসেন, সরেজমিনে গিয়ে অভিযোগটি তদন্ত শেষে শিক্ষক ও কর্মচারীদের সাথে আলোচনা করে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের অফিস কক্ষটির বন্ধ তালা খুলে দিয়ে ব্যবস্থাপনা কমিটি ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কে অফিসে বসে কার্যক্রম পরিচালনা করার পরিবেশ সৃষ্টি করে দিয়েছেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার (একাডেমিক সুপার ভাইজার) শহিদুল ইসলাম, থানা অফিসার ইনর্চাজ এরশাদুল আলম,সিঙ্গীমারী ইউপি চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেন দুলু, কমিটির সদস্য,শিক্ষক শিক্ষিকা গন ও বিভিন্ন সংবাদকর্মী বৃন্দ।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার নাজির হোসেন বলেন, যেহেতু বিদ্যালয়টি এসএসসি পরীক্ষার একটি কেন্দ্র। আগামী ১৯ জুন/২২ তারিখ থেকে পরীক্ষা শুরু হবে। যাতে কোনরুপ সমস্যা সৃষ্টি না হয়। তাই ব্যবস্থাপনা কমিটির সাথে শিক্ষক শিক্ষিকা বৃন্দ মিলে মিশে শান্তি শৃংঙ্খলা বজায় রেখে সুষ্ট পরিবেশে পরীক্ষা সর্ম্পুন করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানিয়ে প্রধান শিক্ষকের অফিস কক্ষটির তালা খুলে দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.