ভোলায় জেলা আওলীগের সম্মেলনে অনুষ্ঠিত, মজুন সভাপতি, বিপ্লব সম্পাদক

সাব্বির আলম বাবু, ভোলাঃ
দীর্ঘ ৬ বছর পর অনুষ্ঠিত হয়েছে ভোলা জেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। শনিবার (১১ জুন) শহরের সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ভার্চ্যুয়ালী সংযুক্ত হয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি। প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, দলের উপদেষ্টা ও ভোলা-১ আসনের সংসদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ। সভাপতিত্ব করেন, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল কাদের মজনু।

উদ্বোধনকালে আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ কখনই কারো বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করেনি, কিন্তু বার বার ষড়যন্ত্রের স্বীকার হয়েছে। ধ্বংস্তুপের মধ্যে দাড়িয়ে সৃষ্টির পতাকা উড়াই, এটাই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। আজকে বাংলাদেশ স্বল্প উন্নত দেশ থেকে উন্নতশীল দেশে পরিনত হয়েছে। এগিয়ে যাওয়ার নাম বাংলাদেশ।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, বাংলার মাটি এখনো রক্তাক্ত হয়ে আছে, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলার অভিমুখে। যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে ইতিহাস থেকে মুছে দিতে চেয়েছিলো তারাই আজ নিজেরাই ইতিহাস থেকে মুছে যাচ্ছে। সম্মেলনের সম্মেলনে সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ এমপি। প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট আফজাল হোসেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তোফায়েল আহমেদ বলেন, বঙ্গবন্ধুরর জু না হলে এদেশ স্বাধীন হতো না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হসিনা আজকে দেশেকে উন্নয়নের রোল মডেলে পরিনত করেছে। পৃথিবীতে অনেক নেতা আসবে কিন্তু বঙ্গবন্ধুর কন্যার মত এমন নেতা আর আর হবো না, তিনি মৃত্যুতে আলিঙ্গন করেছেন। তার নেতৃত্বে দেশে পদ্মা সেতু হয়েছে। তিনি অনেক সাহসি নেতা।

তিনি বলেন, আমি ভোলাকে নিয়ে অনেক গর্ব করি। ভোলার অনেক উন্নয়ন হয়েছে। এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রীর হাতকে আরো শক্তিশালি করার আহ্বান জানান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা এডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ.ফ.ম বাহাউদ্দিন নাসিম, দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহি কমিটির সদস্য আনিসুর রহমান, ভোলা-৪ আসনের এমপি আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, ভোলা-৩ আসনের এমপি নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন ও ভোলা-২ আসনের এমপি আলী আজম মুকুল। ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে ফজলুল কাদের মজনু মোল্লাকে সভাপতি, আবদুল মমিন টুলুকে সিনিয়র সহ-সভাপতি এবং মাইনুল হোসেন বিপ্লবকে সাধারন সম্পাদক করে জেলা আওয়ামী লীগের কমিটি গঠন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রায় আড়াই হাজার ডেলিগেট ও কাউন্সিলসহ অতিথিগন উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.