চরফ্যাশনে ভাসুর কর্তৃক গৃহবধু নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, এলাকায় তোলপাড়

সাব্বির আলম বাবু, ভোলাঃ
ভোলার চরফ্যাশনে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে মারধরের অভিযোগ উঠেছে ভাশুর ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার বিকালে শশীভূষণ থানার হাজারীগঞ্জ ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে গৃহবধূর স্বামীর বাড়িতে বৃহস্পতিবার মারধরের এ ঘটনা ঘটে। মারধরের একটি ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে মুহূর্তের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভিডিওটি ছড়িয়ে পড়ার পর পরই এলাকাজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে। নিন্দার ঝড় উঠছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওচিত্রতে দেখা যায়, বাড়ির উঠানে একজন পুরুষ ও তিন নারী মিলে তর্ক বাধে। তর্কের পর পরই গৃহবধূর ওপর অতর্কিত হামলা করেন চারজন মিলে। এতে ওই গৃহবধূ বিবস্ত্র হয়ে মাটিতে লুটে পড়লেও থেমে থাকেনি হামলাকারীরা। চারজন মিলে ওই গৃহবধূকে মারধর করতে দেখা যায়। নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ রোজিনা অভিযোগ করেন, তার ভাশুর ও তিনি একই বাড়িতে বসবাস করেন। মঙ্গলবার বসতঘরের পাশের পেঁপেগাছে বেড়া দেওয়া কেন্দ্র করে তার ভাশুরের পরিবারের সঙ্গে বিরোধ সৃষ্টি হয়। ওই বিরোধ কেন্দ্র করে তার ভাশুর হেলাল ও তার স্ত্রী মিনারা, মেয়ে শিরিনা, খাদিজা মিলে তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

গৃহবধূর স্বামী নুরে আলম জানান, ঘটনার দিন তিনি বাড়িতে ছিলেন না। বড় ভাই ও তার স্ত্রী-সন্তানরা মিলে তার স্ত্রীকে মারধর করে বিবস্ত্র করে ফেলেন। ঘটনায় ওই দিনই তিনি বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে শশীভূষণ থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার স্ত্রীকে মারধরের ভিডিওটি ছড়িয়ে দিয়েছে কারা সেটি তার জানা নেই। অভিযুক্ত হেলাল জানান, পেঁপেগাছে বেড়া দেওয়া নিয়ে ছোট ভাইয়ের স্ত্রী সঙ্গে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনায় আমার স্ত্রী বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে।

শশীভূষণ থানার ওসি মিজানুর রহমান পাটোয়ারী জানান, মঙ্গলবার উভয়পক্ষের মারামারির ঘটনায় পৃথক দুটি অভিযোগ করেছেন। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিবস্ত্র ভিডিও ভাইরাল প্রসঙ্গে ওসি বলেছেন, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.