ফুলছড়িতে কলম চুরির অপবাদে শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত, অভিযুক্ত শিক্ষক বরখাস্ত

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার ফুলছড়ি উপজেলার গলাকাটি দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ে কলম চুরির অপবাদ দিয়ে ১১ শিশু শিক্ষার্থীকে পিটিয়ে আহত করেছেন ওই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আনিছুর রহমান (৫০)।

এ ঘটনা জানাজানি হলে অভিভাবকরা উত্তেজিত হয়ে বিদ্যালয় ঘেরাও করেন। পরে তারা রাস্তা অবরোধ করে ওই শিক্ষকের শাস্তি দাবি করেন। বৃহস্পতিবার সকালে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত শিক্ষকের বাড়ি ফুলছড়ি উপজেলার উদাখালী ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি শহিদুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার সকালে সহকারী শিক্ষক আনিছুর রহমান ৮ম শ্রেণির বাংলা ব্যাকরণ ক্লাশ নিচ্ছিলেন। এসময় তিনি তাঁর একটি কলম চুরির অপবাদ দিয়ে শিক্ষার্থীদের বেধড়ক মারপিট করেন। ঘটনাটি তাৎক্ষণিক জানাজানি হলে এলাকাবাসী ও অভিভাবকদের মধ্যে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। তারা বিক্ষুব্ধ হয়ে বিদ্যালয় ঘেরাও করেন। একপর্যায়ে বিদ্যালয়ের পাশের গাইবান্ধা-ফুলছড়ি রাস্তা অবরোধ করে অভিযুক্ত ওই শিক্ষকের বিচার দাবি করেন। পরে খবর পেয়ে ফুলছড়ি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জিএমসেলিম পারভেজ ঘটনাস্থলে এসে উত্তেজিত জনতাকে বিচারের আশ্বাস দিয়ে শান্ত করেন। পরে আনিছুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

এব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, ঘটনাটি দুঃখজনক। শিক্ষক আনিছুর রহমানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.