শ্রীপুরে ইউনিয়ন বিএনপি’র দলীয় কার্যালয় ভাংচুর

গাজীপুর প্রতিনিধি:
গাজীপুরের শ্রীপুরে মাওনা ইউনিয়ন বিএনপি’র দলীয় কার্যালয় ভাংচুর ও দলের প্রতিষ্ঠাতা, চেয়ারপার্সন ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যনের ছবি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে মাওনা ইউনিয়ন ও শ্রীপুর পৌর বিএনপি’র যৌথ উদ্যেগে রাত সাড়ে ৯টায় মাওনা চৌরাস্তায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেছে দলটির নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার (২৬ মে) রাত সাড়ে ৮টায় মাওনা বাজারে ছাত্রলীগ কর্মীরা দু’দফা হামলা করে ইউনিয়ন বিএনপি অফিস ভাংচুর করে ছাত্রলীগ কর্মীরা। গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদককে দায়ী করলেও তিনি ও ছাত্রলীগের কোন নেতাকর্মী ঘটনার সাথে জড়িত নয় বলে দাবী করেন।

শ্রীপুর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন বেপারী অভিযোগ করে বলেন, মাওনা ইউনিয়ন বিএনপি অফিস ভাংচুরের খবর পেয়ে তিনিসহ নেতাকর্মীদের নিয়ে রাত ৯টার দিকে দলীয় কার্যালয় পরিদর্শনে যান। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা লোকশূন্য বিএনপি কার্যালয়ে দু’দফা হামলা করে গুরুত্বপূর্ণ দলীয় কাগজ পত্র ছিড়ে ফেলে এবং ৫০ টি চেয়ার ভাংচুর। এক পর্যায়ে হামলাকারীরা দলের প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত জিয়াউর রহমান, দলের চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ছবি নামিয়ে ভাংচুর করে। পরে তাৎক্ষনিক শ্রীপুর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন বেপারী, মাওনা ইউনিয়ন বিএনপি’র সভাপতি মিনহাজ উদ্দিন সরকার, সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার সরকার, যুগ্ন সম্পাদক নূরুজ্জামান জামিল, শ্রীপুর পৌর বিএনপি’র যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান সজল, গাজীপুর জেলা যুবদলের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম, ওয়ার্ড বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক নস মিয়া প্রধান, মাওনা ইউনিয়র যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক ফজরুল হক রোমানের নেতৃত্বে উপস্থিত দলের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের নিয়ে মাওনা চৌরাস্তায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করে তারা। মিছিল শেষে গাজীপুর জেলা যুবদলের সাবেক যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলামের পরিচালানয় বক্তব্য রাখেন শ্রীপুর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন বেপারী।

তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, ভাংচুরের প্রতিবাদে তাদের বিক্ষোভ মিছিল শেষে গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির মোড়লের নেতৃত্বে মাওনা ইউনিয়ন বিএনপি’র কার্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নিয়ে দ্বিতীয় দফা হামলা করে অসি কক্ষের চেয়ার-টেবিল ব্যাপক ভাংচুর করে।

এদিকে, মাওনা ইউনিয়ন বিএনপি’র দলীয় কার্যালয় ভাংচুর এবং দলের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যানদের ছবি ভাংচুরের ঘটনায় রাতেই শ্রীপুর পৌর বিএনপি’র দপ্তর সম্পাদক নাসির আহম্মেদ সরকারের পক্ষ থেকে প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান দলের নেতাকর্মীরা। বিজ্ঝপ্তিতে তারা জানান, সরকারের মদদপুষ্ট সন্ত্রসীদের এমন কর্মকান্ডে গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রা বাধাগ্রস্থ হচ্ছে। বিরোধী মত প্রকাশে বাধাসহ বাকশালী কায়দায় এই সরকার ক্ষমতায় দীর্ঘস্থায়ী হওয়ার অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

এসব বিষয়ে গাজীপুর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির মোড়ল বলেন, ছাত্রলীগের কোনো নেতাকর্মী মাওনা বিএনপি অফিসের দিকে যায়নি। বিএনপি নেতারা মিথ্যা অভিযোগ করছে। আমিসহ ছাত্রলীগের কোনো নোতকর্মী ভাংচুরের ঘটনারন সাথে জড়িত নই।

শ্রীপুর উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আক্তারুল আলম মাষ্টার বলেন, বিএনপি অফিসে হামলা চালিয়ে ভাংচুরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই। স্থানীয় প্রশাসনের কাছে দোষীদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবী করছি।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান জানান, মাওনা ইউনিয়ন বিএনপি অফিস ভাংচুরের ঘটনা আমার জানা নেই। তাছাড়া বিএনপি’র পক্ষ থেকে কেউ এ ধরনের কোনো লিখিত অভিযোগ করেনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.