চিরিরবন্দরে মায়ের সাথে অভিমান করে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

মোঃ আসাদুল্লাহ আল গালিব,দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের চিরিরবন্দর উপজেলায় পল্লবী রানী (১৬) মানে এক স্কুল ছাত্রী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) আনুমানিক সন্ধ্যা সাড়ে ৬ ঘটিকার  সময় উপজেলার ৬ নং অমরপুর ইউনিয়ন পরিষদের কারেঙ্গাতলী বাজার সংলগ্ন জতিন ডাঃ পাড়ায় ঘটনাটি ঘটে।

মৃত পল্লবী রানী কারেঙ্গাতলী বাজার সংলগ্ন জতিন ডাঃ পাড়ার বিকাশ চন্দ্র রায়ের বড় মেয়ে। সে কারেঙ্গাতলী স্কলার রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুলের এবার এসএসসি পরীক্ষার্থী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সন্ধ্যার আগে পল্লবী ও তার মায়ের কথা কাটাকাটি হয়। তার মা তাকে বলে তুই মরতে পারিস না বলে বাসার কাজ করেন। এদিকে পল্লবী অভিমান করে ঘরের দরজা বন্ধ করে পড়তে বসে। অনেকক্ষণ পর মা পল্লবীকে ডাকতে গেলে কোন সাড়া না পাওয়ায় দরজা ভেঙ্গে দেখে পল্লবী গলায় দড়ি পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে পুলিশ এসে ঝুলে থাকা লাশ নিচে নামায়।

চিরিরবন্দর থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ বজলুর রশিদ বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, পুলিশ খরব পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। আমি নিজেও ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। পল্লবীর মৃত্যুতে রহস্যজনক কোন ঘটনা না থাকায় লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা দায়ের করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.