একই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বামী স্ত্রী ও দেবর চেয়ারম্যান প্রার্থী!

সাব্বির আলম বাবু, ভোলাঃ
অষ্টম ধাপে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোলার লালমোহন উপজেলার কালমা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী হয়েছেন স্বামী-স্ত্রী ও দেবরসহ একই পরিবারের তিনজন। তারা হলেন আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনীত প্রার্থী মো. আকতার হোসেন, তার স্ত্রী রেহানা বেগম লাইজু এবং আকতার হোসেনের ভাই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. ইকবাল হোসেন। তাদের মনোনয়ন বৈধ বলে ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আমির খসরু গাজী।

তিনি বলেন, ‘কালমা ইউনিয়নে একই পরিবারের তিনজন মনোনয়ন দাখিল করেছেন। তাদের মনোনয়ন বৈধও হয়েছে। তারাসহ অন্য প্রার্থীদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে যে জয়ী হবেন তা মেনে নিবে বলে আশা করছি।’ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জানান, যাদের মনোনয়ন বাতিল হয়েছে, তাদের আপিল করার সুযোগ রয়েছে। এ ব্যাপারে নৌকার প্রার্থী আকতার হোসেন বলেন, ‘যে যার মতো মনোনয়ন দাখিল করেছেন। বাকিটা দলীয় সিদ্ধান্তের ওপর নির্ভর করবে তারা নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত থাকবে কিনা।’

স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. ইকবাল হোসেন বলেন, ‘স্থানীয় জনগণের ভালোবাসা নিয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছি। এখন বড় ভাই (আকতার হোসেন) যদি মনে করে, আমি নির্বাচন করলে তার ভালো হয়; তাহলে করব। আমাকে সমর্থন করলে শেষ পর্যন্ত নির্বাচনী মাঠে থাকব।’

কালমা ইউনিয়নের বাসিন্দা শফিকুল ইসলাম, রহিজল, শাহাব্বুদ্দিনসহ আরো অনেকেই জানান, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে যত বেশি প্রার্থী হবে, ততই জনগণের কদর বাড়বে। প্রার্থীরা জয়ের জন্য ভোটারদের দ্বারে দ্বারে আসবে, ভোট চাইবে। জনগণের দুঃখ কষ্টের কথা শুনবে। প্রার্থী বেশি থাকলে ভোট উৎসবে পরিণত হবে। প্রশাসন তা সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণূ করার চেষ্টা করবে। এছাড়া কালমা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন মো. জাকির হোসেন, ইসলামী আন্দোলনের লোকমান হোসেন এবং জাতীয় পার্টির সিরাজুল ইসলাম। রমাগঞ্জ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী গোলাম মোস্তফার সঙ্গে স্বতন্ত্র হিসেবে লড়বেন অধ্যক্ষ জামাল উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন রাব্বী, মোসলেহ উদ্দিন লিটন, সফিউল আলম প্রিন্স এবং ইসলামী যুব আন্দোলনের প্রার্থী মাওলানা ইমাম উদ্দিন শামিম।

Leave a Reply

Your email address will not be published.