কিশোরগঞ্জে ভুট্টার দামে কৃষকের মুখে হাসির ঝিলিক

নীলফামারী প্রতিনিধিঃ
নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলায় প্রতি বছর বাড়ছে ভুট্টার চাষাবাদ। ধান, গম ও অন্যান্য ফসলের তুলনায় খরচ ও পরিশ্রম কম এবং দাম ভালো পাওয়ায় চাষিরা ভুট্টা চাষাবাদে ঝুঁকেছেন। এ ছাড়া সরকারি প্রণোদনা ও সহযোগিতা দেওয়ায় প্রতি বছরই বাড়ছে ভুট্টার আবাদ।কম খরচে অধিক লাভের আশায় কৃষকরা ভুট্টা চাষ করছেন। ভুট্টা চাষে প্রতি বিঘায় হাল, বীজ, সার, ওষুধ ও শ্রমিক দিয়ে প্রায় ৫-৭ হাজার টাকার মতো খরচ হয়। এ ছাড়া আলুর জমিতে ভুট্টার আবাদ করলে খরচ একটু কম হয়।প্রতি বিঘায় ভালো মানের ভুট্টা হলে ফলন আসে ৩০-৩৫ মণ। এ ছাড়া কমপক্ষে ২৫-৩০ মণের মতো ফলন হয়ে থাকে।বর্তমানে যেখানে নতুন ভুট্টার দাম যাচ্ছে ৯০০-৯৫০ টাকা মণ । ভুট্টার আবাদে রোগবালাই তেমন নেই। প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে ভুট্টা চাষিরা কিছুটা ক্ষতিতে পড়েছিলেন।কিন্তু দামে পুষিয়ে নিয়েছেন চাষিরা। উপজেলার সদর ইউনিয়নের কেশবা গ্রামের কৃষক হেলাল উদ্দিন জানান, তিনি এবছর ৫ বিঘা জমিতে ভুট্টার আবাদ করেছেন। প্রতি বিঘায় সব মিলে খরচ হয়েছে ৬-৭ হাজার টাকা। আর ফলন হয়েছে প্রতি বিঘায় ৩০-৩৫ মণ ভুট্টা। প্রতি মণ ভুট্টা বিক্রি করেছেন ৯৫০ টাকা। মোট প্রতি বিঘায় ভুট্টা বিক্রি করেছেন ৩০-৩৫ হাজার টাকা। যেখানে খরচ হয়েছে ৬-৭ হাজার টাকা। বাজে ডুমুরিয়া গ্রামের সিদ্দিক জানান, আড়াই বিঘা জমিতে ভুট্টা চাষ করেছেন তিনি। অন্যান্য ফসলের তুলনায় ভুট্টা চাষে খরচ ও পরিশ্রম কম। দামও ভালো পাওয়া যায়। প্রতি মণ ভুট্টা ৯০০-১০০০ হাজার টাকা দাম পাওয়া যাচ্ছে। এ ছাড়া কৃষি অফিস থেকে সার্বিক পরামর্শ দিয়ে থাকে।

এবিষয়ে কিশোরগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার মো. হাবিবুর রহমান জানান, গত বছরের চেয়ে এবছর বেশি ভুট্টার চাষাবাদ হয়েছে। এবছর ৩ হাজার ৩শত ৫৫ হেক্টর জমিতে ভুট্টার চাষাবাদ হয়েছে। এবং দামও বেশি পাওয়ায় কৃষকেরা আনন্দিত ও খুশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.