টাঙ্গাইলের সখিপুরে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস পালন

মোঃ সোহেল আহমেদ, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি:
টাঙ্গাইল জেলার সখিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস উদযাপন করা হয়েছে। নার্সিং সুপারভাইজার খোদেজা খাতুনের নেতৃত্বে, সখিপুর হাসপাতালের সকল,ডাক্তার,নার্স,মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট ও সকল শ্রেণীর স্টাফদের সমন্বয়ে এক বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স চত্বরে দিবসটি উদযাপন করা হয়।

(“Nurses: A voice to lead invest in nursing and Respect right to secure global health”)”নার্স: নার্সিং-এ বিনিয়োগের নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য একটি কণ্ঠস্বর এবং বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য সুরক্ষিত করার অধিকারকে সম্মান করুন”। এই স্লোগানকে সামনে রেখে প্রতিবছর ১২মে সারাবিশ্বে একযোগে “International nurses day” উদযাপিত হয়। তারই ধারাবাহিকতায় director of general nursing and midwifery (D.G.N.M)’র সার্বিক নির্দেশনায় বাংলাদেশের সকল হাসপাতালে আন্তর্জাতিক নার্সেস দিবস উদযাপন করে আসছে।

সখিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চত্বরে সকাল ০৯টায় এক বর্ণাঢ্য র্যা র্লী সখিপুরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে হাসপাতালের কনফারেন্স রুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে স্বাস্থ সচেতনতা বিষয়ক সার্বিক দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্য উপস্থাপন করেন সখিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের (U,H,F,P,O)ডা. রুহুল আমিন মুকুল। বক্তৃতা করেন,ডা.শাহিনুর আলম, নার্সিং সুপারভাইজার খোদেজা খাতুন প্রমুখ।
এসময় উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সদা হাস্যোজ্জ্বল ও মমতাময়ী খ্যাত নার্স “মোসাম্মৎ মাহমুদা খাতুন” সিনিয়র স্টাফনার্স ছায়ারানী সরকার,মোঃ গুলজার হোসেন, মোঃ.ফেরদৌস রহমান মানিক সহ সকল নার্স ও অন্যান্য স্বাস্থ্য সহযোগী কর্মকর্তা-কর্মচারী বৃন্দ।

উল্লেখ্য:যাকে ঘিরে আজকের এই বর্ণাঢ্য আয়োজন, তিনি হলেন “দ্যা দেখি উইথ দ্যা ল্যাম্প” উপাধি খ্যাত “ফ্লুরেন্স নাইটিঙ্গেল”।তিনি ১২ মে ১৮২০ সালে ইতালিতে জন্ম গ্রহণ করেন এবং ১৩ আগষ্ট ১৯১০ সালে ৯০ বছর বয়সে লন্ডনে মৃত্যু বরণ করেন। বিশ্বস্বাস্থ্য সেবায় তিনিই প্রথম চিন্তা করেন রোগীকে উন্নত সেবা প্রদানে ডাক্তারের পাশাপাশি নার্সের প্রয়োজন রয়েছে। বিশেষ করে “মা”ও শিশু স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে পুরুষের পাশাপাশি নারীদের এগিয়ে আশা জরুরী। আর তারই ধারাবাহিকতায় তৎকালীন সময় তিনি লন্ডনে পড়াশোনা শেষে বিশ্বের প্রথম নার্সিং ইন্সটিটিউট প্রতিষ্ঠা করেন। আর সে কারণেই বিশ্বব্যপী স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট সকল নার্সগন এই মহা মানবীর জন্মদিনকে চির স্মরণীয় করে রাখতেই প্রতিবছর বিশ্বব্যাপী আয়োজিত উৎসবের ধারাবাহিকতায় সখিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত নার্সদের উদ্যোগে এই দিনটি উদযাপনে পালন করা হয় নানা কর্মসূচি।

সব শেষে কেক কাটা ও স্টাফদের মাঝে কেক বিতরণ এবং স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রোগীদের কেক খাওয়ানোর মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.