আশুগঞ্জে ব্লাড ফর যাত্রাপুর সংগঠনের উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত

আকাশ সরকার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধিঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে ব্লাড ফর যাত্রাপুর সংগঠনের উদ্যোগে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পে দিনব্যাপী প্রায় সহসতাধিক দরিদ্র লোককে বিনামুল্যে চিকিৎসা এবং ঔষধ প্রদান। ব্লাড ফর যাত্রাপুর সংগঠনের উদ্যোগে শনিবার সকাল থেতে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প ২০২২ অনুষ্ঠিত। দিনব্যাপী এই ক্যাম্পে সহসতাধিক দরিদ্র লোককে বিনামুল্যে চিকিৎসা এবং ঔষধ প্রদান করেছে সংগঠনটি।

এই উপলক্ষে যাত্রাপুর বর্নমালা কিন্ডারগার্টেন কার্যালয়ে যাত্রাপুর গ্রামের মুরব্বি মোঃ গোলাম মুর্শিদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহকবায়ক আতাউর রহমান কবির, উদ্বোধক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালের ডাক্তার ফাইজুর রহমান ফয়েজ।

বিশেষ অতিথি হিসাবে সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিক, সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ মোবারক হোসেন,আশুগঞ্জ উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শাহিন শিকদার, ডাক্তার নুপুর সাহা, হাজী আব্দুল জলিল উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক সালাহউদ্দিন সোহেল প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে রোগীদের বিনামুল্যে চিকিৎসা শুরু করেন।বিরতিহীনভাবে চকিৎিসা চলে কিাল ৫টা পর্যন্ত।১০জন ডাক্তার।এদরেমধ্যে ডাকাতার সুমন সরকার,ডাক্তার শায়লা আক্তার সারা.ডাক্তার মীর নাইমা জাহান,ডাক্তার ইমন,ডাক্তার সায়েম,ডাক্তার ফরিদ আহমেদ,ডাক্তার তৌহিদুল ইসলাম সম্রাট,

ডাক্তার নয়নচন্দ্র ঘোষ,ডাক্তার সামিয়া জাহান,ডাক্তার সজিব। চিকিৎসা দেওয়ার পাশাপাশি রোগীদের বিনামুল্যে ঔষধও দেওয়া হয।এ বিষয়ে আশুগঞ্জ উপজেলঅর যাত্রাপুর গ্রামের ড়রিদ্র রোগী রহিমা বেগম বলেন,যাত্রাপুরের যুবক ছেলেদের উদ্যোগে ডাক্তার দেখানো এবং ঔষধ বিনামুল্যে পেয়ে আমি খুশি।

ব্লাড ফর যাত্রাপুর সংগঠনের অন্যতম উদ্যোক্তা মোহাম্মদ আব্বাস উদ্দিন বলেন,আমি ডাক্তার নয় তবে এই পেশার সাথে আমি দীর্ঘদিন ধওে জড়িত আছি। দীর্ঘদিন ধরে এই উদ্যোগে একটা কিছু কারার একটা চেষ্টা ছিল।মহামারী করোনার কারণে তা হয়ে উঠেনি। মহামারী করুনার প্রভাব নিয়ন্ত্রনে আসায় এবং ইধুল ফিতর উপলক্ষে ব্লাড পর যাত্রাপুরের উদ্যোগে বিনামুল্যে চিকিৎসা এবং ঔষধ প্রদানের কার্যক্রম শুরু করি।সমাজের বিশিষ্টজনদের সহযোগীতা পেলে এই কার্যক্রম ভবিষ্যতে আরো বড়পরিসরে করার আশাবাদ ব্যাক্ত করেন।

সবশেষে প্রধান অতিথি উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহকবায়ক আতাউর রহমান কবির,ডাক্তার ফাইজুর রহমান ফয়েজ, সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শফিকুল ইসলাম শফিক, সাবেক চেয়ারম্যান মোঃ মোবারক হোসেন প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.