গোবিন্দগঞ্জে ভিজিডির চাল ব্যবসায়ীর কাছে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় সচিব

গাইবান্ধা প্রতিনিধি:
গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে কামারদহ ইউপি ভবন থেকে ভিজিডি’র চাল পিকআপযোগে নিয়ে গেলেন চাল ব্যবসায়ী। এ ঘটনায় উপজেলাজুলে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। এ ঘটনায় রবিবার (১ মে) ইউপি সচিব রোকনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়েছে।

এর আগে সোমবার (২৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে ইউনিয়ন পরিষদে রক্ষিত ৩০টি কার্ডের বিপরীতে বরাদ্দকৃত চাল পিকআপে লোড করে নিয়ে যায় ব্যবসায়ী। জনৈক ব্যক্তি ট্রাকে চালের বস্তা লোড করার একটি ভিডিও মোবাইল ফোনে ধারণ করলে তা বিভিন্ন দপ্তর ও ব্যক্তির নিকট ছড়িয়ে পড়ে। ভিডিওতে চাল ব্যবসায়ী একই ইউপির ফেলুপাড়া গ্রামের আলামিনের ছেলে ও জনৈক মাফি নামক এক ব্যক্তিকে দেখা যায়। এছাড়া একই ইউপির (বগুড়া ন ১১ ১৬৬০) পিক আপের চালক হারুনকেও দেখা যায়।

এ বিষয়ে গত শনিবার (৩০ এপ্রিল) সচিব রোকন জানান, চালগুলো ভিজিডির। কামারদহ ইউপির ১৬৪টি কার্ডের মধ্যে ৩০টি কার্ডের চাল অবশিষ্ট থাকে। যে কার্ডগুলো একত্রে জমা দিয়ে একজন চালের বস্তাগুলো পিকআপযোগে নিয়ে যায়। বিগত ১৬ মাস ধরে এভাবেই চলে আসছে। তবে ইউপি চেয়ারম্যান এ বিষয়টি জানেন না বলেও তিনি জানান। বিষয়টিতে ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়নি। 

এ বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইউপি সচিব বর্তমানে থানায়। তবে এখনো জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.