রেজওয়ানা হিমেলের প্রচেষ্টায় পবিপ্রবি’তে ভেন্ডিং মেশিন (ফ্রিডম হাইজিন কর্ণার) স্থাপন

পবিপ্রবি প্রতিনিধি:
নারীদের স্বাস্থ্যসেবায় পিরিয়ডের সময় সুস্থতার কথা মাথায় রেখে পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে(পবিপ্রবি) রেজওয়ানা হিমেলের প্রচেষ্টায় ভেন্ডিং মেশিন (ফ্রিডম হাইজিন কর্ণার) স্থাপন করা হয়েছে। সোমবার (২৫ এপ্রিল) বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল ও কবি বেগম সুফিয়া কামাল হলে ভেন্ডিং মেশিন স্থাপন করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল এর প্রভোস্ট প্রফেসর ড. পূর্ণেন্দু বিশ্বাস, সহকারী প্রভোস্ট মো: রুবেল মাহমুদ, সহকারী প্রভোস্ট পাপড়ি হাজরা এবং কবি বেগম সুফিয়া কামাল হল এর প্রভোস্ট ড. আনোয়ার হোসেন মন্ডল। আরও উপস্থিত ছিলেন পবিপ্রবি ছাত্রলীগ নেত্রী রেজোয়ানা হিমেল, আজিমাতুন্নেছা সাথী, তৃষা মল্লিক, সারমিন আক্তার সহ আরও অনেকে।

ভেন্ডিং মেশিন থেকে যেকোনো সময় ছাত্রীরা ১০ টাকার নোট দিয়ে স্যানিটারি ন্যাপকিন সংগ্রহ করতে পারবে যার বাজার মূল্য ১৪টাকা। ২০০১ সালের পর থেকে প্রচলিত যেকোন দশ টাকার নোট দিলেই একটি ন্যাপকিন বেড়িয়ে আসবে। মেশিনের পাশেই দুটো ডিসপোজাল বিন এবং দুটো তোয়ালে দেওয়া থাকবে।

পবিপ্রবি ছাত্রলীগ নেত্রী রেজোয়ানা হিমেলের দীর্ঘদিনের প্রচেষ্টায় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত ও এসিআই এর সহযোগিতায় সফলভাবে মেশিন স্থাপন করা হয়েছে।

নেত্রী হিমেল বলেন, “নারীদের পিরিয়ডের সময় তথা স্বাভাবিক সুস্থতার কথা মাথায় রেখে ভেন্ডিং মেশিন স্থাপনের জন্য প্রচেষ্টা চালিয়ে যাই, ভিসি স্যারের সহযোগিতায় সফল হয়েছি। মাসিক মানেই অশুচি কিংবা কুসংস্কার এ থেকে সমাজকে বেড়িয়ে আসতে হবে। নারীদের স্বাস্থ্য সেবায় আমাদের সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে তবেই গড়ে উঠবে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা।”

উল্লেখ্য, পবিপ্রবির বহি:স্থ বাবুগঞ্জ ক্যাম্পাসেও খুব শীঘ্রই ভেন্ডিং মেশিন স্থাপন করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.