নোয়াখালীতে খ্রিস্টান অপবাদ দিয়ে মারধর করার অভিযোগ

নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াখালীল সেনবাগ উপজেলায় খ্রিস্টান অপবাদ দিয়ে এক ব্যক্তিকে মারধর করে বসতঘর পুড়িয়ে দিয়ে বাড়ি থেকে উচ্ছেদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

ভুক্তভোগী মো.সবুজ উপজেলার ছাতারপাইয়া ইউনিয়নের ছাতারপাইয়া পশ্চিম পাড় গ্রামের আব্দুল লতিফের ছেলে এবং হিজবুত তাওহীদের কর্মি।

বৃহস্পতিবার (২১ এপ্রিল) প্রতিকার চেয়ে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ভুক্তভোগী পরিবার নোয়াখালী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে।

সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী সবুজ অভিযোগ করে বলেন, গত ১৬ এপ্রিল উপজেলার ছাতারপাইয়া ইউনিয়নের সিলন মিয়ার জামে মসজিদের ইমামের মো. ইমাম হোসেনের নেতৃত্বে ২৫-৩০ জন লোক বাশেঁর লাঠি, লোহার রড় নিয়ে খ্রিস্টান মারো ইসলাম রক্ষা কর শ্লোগান দিয়ে আমার বাড়িতে আক্রমণ করতে যায়। যাওয়ার পথে পথের মধ্যে আমাকে মারধর করে। খবর পেয়ে আমার মা লাইলী বেগম আমাকে উদ্ধার করতে গেলে তারা আমার মাকেও মারধর করে।

তিনি আরও বলেন,এ সময় আমার মায়ের কাছ থেকে আমাকে নিয়ে যাওয়ার বিনিময়ে জোরপূর্বক ৫০ টাকা মূল্যের নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয় এবং আমার ব্যবহৃত মোবাইলটি ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় সেনবাগ থানায় অভিযোগ করেও কোন প্রতিকার না পাওয়ায় আজকে সাংবাদিক সম্মেলন করেন বলে উল্লেখ করেন তিনি। এ সময় তিনি ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী এবং নিজ পরিবারের নিরাপত্তা দাবী করেন।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইকবাল হোসেন পাটেয়ারী বলেন অভিযোগকারী ব্যক্তি এলাকায় বিভ্রান্তিমূলক বই বিতরণ করে। এ সব বিষয় নিয়ে স্থানীয় লোকজন তাদের উপর ক্ষেপে আছে। বিতর্কিত বই বিতরণ করতে গেলেই ঝামেলা। অভিযোগ পেয়ে আমাদের এক কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সে সমস্যা সমাধান করে দিয়েছে।

ওসি ইকবাল হোসেন পাটেয়ারী আরও বলেন, মারধর এবং মোবাইল ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ সঠিক নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.