কুড়িগ্রামে বাঁচার আকুতি মায়া নামের এক তরুণীর

 

আরিফুল ইসলাম আরিফ, ফুলবাড়ী(কুড়িগ্রাম)প্রতিনিধিঃ 
ভাইগো আমার স্বপ্নগুলো নিভে যাচ্ছে,আমি বাঁচবো তো ‘ফোনের ওপাশ থেকে কান্নাভেজা কন্ঠ বলছিল কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার তরুণী মায়া সুলতানা। বাঁচার আকুতি তার প্রতিটি বাক্যে। 

যে-বয়সে সারাজীবন দেখে আশা স্বপ্ন পূরণের কথা,সেই বয়সে হার্ট  ও ফুসফুসে ব্লক ধরা পড়েছে আর পায়ে মারাত্মক ঘাঁ নিয়ে জীবনের সঙ্গে লড়াই করতে নামতে হচ্ছে তাকে। মায়ার স্বপ্ন ছিল একজন শিক্ষক হওয়ার। 

 মায়া কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলার চন্দ্রখানা গ্রামের আকবর আলীর মেয়ে। সে ২০১১ সালে ফুলবাড়ী জছি মিঞা মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করে।

মায়া জানায়, দুই বছর আগে পায়ে ঘাঁ হয়।পরবর্তীতে ভারতে উন্নত চিকিৎসা গ্রহণ করে।এরপর হার্ট  ফুসফুসে ব্লক ধরা পড়ে। মধ্যবিত্ত সংসারের মায়ার পরিবার,জমিজমা বিক্রি করে তাকে চিকিৎসা করায়।কিন্তু এখনো তা সেরে উঠেনি।

মায়ার বড় ভাই ফরহাদ হোসেন জানান, ডাক্তার বলে  দিয়েছে দ্রুত চিকিৎসা করালে মায়ার সুস্থ জীবনে ফেরার সম্ভাবনা রয়েছে। এজন্য দরকার প্রচুর অর্থ।কিন্তু চিকিৎসার ব্যয়ভার বহনের  সক্ষমতা  নেই আর পরিবারের।সহযোগিতার আকুতি  করে ফরহাদ বলেন,আমার বোনের বেঁচে থাকার জন্য প্রয়োজন আপনাদের সকলের সহায়তা।আপনাদের সহযোগিতায় আমার বোনের চিকিৎসা সম্ভব। 

সহযোগিতা পাঠানোর ঠিকানা, সঞ্চয়ী হিসাব নং-০১৭৮১-২৬০০০০০৩১৪(ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক,বিরুলিয়া শাখা সাভার.হিসাবের নাম ফরহাদ হোসেন রোগীর বড় ভাই মোবাঃ০১৬০৮-৮৫১৭৮২

বিকাশ নাম্বারঃ০১৭১৭-১৫৮৮৪৪ (রোগীর মোবাইল নাম্বার) 

Leave a Reply

Your email address will not be published.