সংবাদ প্রকাশের পর অসহায়  দম্পতির বাড়িতে ইউএনও

আরিফুল ইসলাম আরিফ, ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধিঃ
ফুলবাড়ী উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নে জরাজীর্ণ ঝুপড়িতে অসহায় দম্পতির বসবাস মেলেনি সরকারি ঘর শিরোনামে আগামি নিউজে সংবাদ প্রকাশের পর বুধবার দুপুরে ওই অসহায় দম্পতির বাড়িতে গিয়ে খোঁজখবর নিয়েছেন ফুলবাড়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুমন দাস।
এ সময় তাদেরকে সহযোগিতা ও একটি ঘর দেয়ার আশ্বাস জানান তিনি। এ সময় সঙ্গে ছিলেন ,উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সবুজ কুমার গুপ্ত, বড়ভিটা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মিন্টু, ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য বাতেন বসুনিয়া সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
উল্লেখ্য, উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের বড়লই সংলগ্ন নাওডাঙ্গা এলাকার ৭৮ বছর বয়সী অসহায় বৃদ্ধ নূর মোহাম্মদ তার বৃদ্ধা অসুস্থ স্ত্রী জরিনা বেগমকে নিয়ে রাস্তার ধারে বাঁশের চাটাই ও পলিথিন দিয়ে ৪ শতাংশ জমির উপর নির্মিত জরাজীর্ণ ঝুপড়িতে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছেন। তাদের ভাগ্যে জোটেনি সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা মেলেনি একটি সরকারি ঘর। বর্তমানে বসবাসের একমাত্র আশ্রয় ঝুপড়িটি জরাজীর্ণ হওয়ায় একটু ঝড়-বৃষ্টিতেই ভিজে যায় বিছানাপত্র, অনেক সময় বৃষ্টি আসলে কাতা বালিশ মুড়িয়ে ঘরের এক কোণায় বৃষ্টি থামা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়, কখনো কখনো বেশি বৃষ্টি হলে নিতে হয় অন্যের বাড়িতে আশ্রয়, ফলে মানবেতর জীবন যাপন করে আসছেন ওই দম্পতি। ছেলে মেয়ে না থাকায় শারীরিক অসুস্থ থাকলেও বৃদ্ধ বয়সেও ছুঁটতে হয় খাবার জোগাড় এর খোঁজে। স্ত্রী জরিনার চোখের সমস্যা থাকলেও টাকার অভাবে করতে পারছেন না চিকিৎসা। তাদের এই দুঃখ-দুর্দশার বিষয়টি ১২ এপ্রিল আগামী নিউজে প্রকাশিত হওয়ার ফলশ্রুতিতে উপজেলা প্রশাসন গিয়ে তাদের খোঁজ খবর নেন এবং তাদের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.