ভোলায় ৬৪৩ জেলের জেল-জরিমানা

সাব্বির আলম বাবু,  ভোলাঃ
ইলিশ ধরায় দুই মাসের সরকারি নিষেধাজ্ঞা চলছে। কিন্তু এই নিষেধাজ্ঞা ভঙ্গ করে অনেক জেলে মাছ ধরতে গেছেন নদীতে। ফলে নিষেধাজ্ঞা চলার ৩৫ দিনে ৬৪৩ জেলেকে আটক করেছে মৎস্য বিভাগ। ভোলার মেঘনা ও তেতুলিয়া নদীতে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটকদের মধ্য থেকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে ১১২ জেলেকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও ৫৩১ জনকে জরিমানা করা হয়। এসময় জব্দ করা হয় ১৪ লাখ মিটার কারেন্ট জাল, ৪০০ বেহুন্দি ও মশারিসহ নানা ধরনের অবৈধ জাল এবং প্রায় সাড়ে সাত টন মাছ। ভোলা জেলার মৎস্য কর্মকর্তা এসএম আজহারুল ইসলাম সোমবার (৪ এপ্রিল) রাতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, গত ১ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত পুলিশ, নৌপুলিশ ও কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় ৬৪৩ জেলেকে আটক করে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জেল-জরিমানা করা হয়। আটকদের মধ্যে ভোলা সদর উপজেলায় ১১০ জন ও লালমোহনে দুইজনকে জেল দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ভোলা সদর উপজেলায় ১৫৩ জন, দৌলতখানে ৯১ জন, বোরহানউদ্দিনে ১৮ জন, তজুমদ্দিনে ৭১ জন, লালমোহনে ৩১ জন ও চরফ্যাশনে ১৬৭ জেলেকে জরিমানা করা হয়।

এই মৎস্য কর্মকর্তা আরও জানান, গত ১ মার্চ থেকে ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত ভোলার ইলিশা থেকে চর পিয়াল মেঘনা নদীর শাহবাজপুর চ্যানেলের ৯০ কিলোমিটার, ভেদুরিয়া থেকে চর রুস্তম পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার তেতুলিয়া নদী ইলিশের আভয়াশ্রম হওয়ায় সব ধরনের মাছ শিকারে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.