সন্তানের লাশ ঘরে রেখে জুমার নামাজ পড়ালেন বাবা

শেখ সোহেল, বাগেরহাট:
পানিতে ডুবে মৃত শিশু দেড় বছর বয়সী ছেলে আব্দুর রহমানের মরদেহ ঘরে রেখে জুম্মার নামাজের ইমামতি করেছেন বাবা মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ। সন্তান হারানোর ব্যাথা বুকে চেপে নামাজ পড়ানোর বিষয়টি ছড়িয়েছে স্থানীয়দের মুখে মুখে। সমবেদনা জানানোর পাশাপাশি প্রশংসাও করছেন স্থানীয়রা।

শুক্রবার (০১ এপ্রিল) বেলা ১১ টার দিকে বাগেরহাট সদর উপজেলার দেওয়ানবাটি গ্রামে নিজ বাড়ির পিছনের পুকুরে পড়ে যায় দেওয়ানবাটি দক্ষিণ পাড়া জামে মসজিদের ইমাম মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ‘র শিশু সন্তান আব্দুর রহমান। বাড়ির মধ্যে কোথাও না পেয়ে পুকুরে যেয়ে শিশুটিকে ভাসতে দেখেন তার বাবা। দ্রুত উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

শিশুটির চাচা আয়াস মাহামুদ রাসেল বলেন, শুক্রবার আনুমানিক ১১টা থেকে সাড়ে ১১ টার মধ্যে কোনো একসময় আব্দুর রহমান পানিতে পড়ে যায়। উদ্ধারের পরে আমরা তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাই। কিন্তু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানা যায় আনার মধ্যেই সে মারা গেছে।

শিশুটির পিতা দেওয়ানবাটি দক্ষিণ পাড়া জামে মসজিদের ইমাম মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বলেন, নিশ্চই আল্লাহ উত্তম ফয়সালাকারী। তিনি যেমন ভালো মনে করেছেন তেমনটাই হয়েছে। মানুষের এখানে কিছু করার নেই। আমি আমার ইমানী দায়িত্ব পালন করেছি। তবে আমি তো একজন পিতা, সন্তানের লাশ চোখের সামনে দেখা কত ভয়ানক কষ্টের তা ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। আল্লাহ আমাদের পরিবারের সকলকে ধৈর্য্য ধারণের তৌফিক দিক এই দোয়াই করি।

শাহিদুজ্জামান নামের মসজিদের এক মুসল্লী বলেন, ইমাম সাহেব সদর হাসপাতাল থেকে বাচ্চার মরদেহ এনে বাড়িতে রেখেই মসজিদে চলে এসেছেন নামাজ পড়ানোর জন্য। এত কষ্টের মধ্যেও তিনি যে নামাজে দাঁড়িয়েছেন এটা আমাদের শত কষ্টেও ধৈর্য্য ধারণের শিক্ষা দেয়।

বাগেরহাট সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে ,এম আজিজুল ইসলাম পানিতে পরে শিশুটির মৃত্যু বিষয় নিশ্চিত করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *