রামপালে পুকুর থেকে উদ্ধার করা কুমিরটি নিয়ে গেল বন বিভাগ

শেখ সোহেল,বাগেরহাট:
খাদ্যের সন্ধানে আসা বাগেরহাটের রামপালে পুকুর থেকে উদ্ধার করা কুমিরটি নিয়ে গেল বন বিভাগ। মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) ভোরে রামপাল উপজেলার শ্রীরম্ভা এলাকার ইসরাফিল শেখের বাড়ির পুকুর থেকে জাল টেনে কুমিরটি ধরে গ্রামবাসী। এলাকাবাসীর কাছ থেকে খবর পেয়ে কুমিরটি উদ্ধার করেন বন বিভাগের কর্মকর্তারা। কুমিরটি এক নজর দেখতে হাজার হাজার উৎসুক জনতা ভিড় করে মাঠে।

ইসরাফিল শেখের ছোট ভাই মিরাজ শেখ বলেন, ফজরের নামাজ পড়ার জন্য পুকুরে ওজু করতে গেলে কুমিরটি দেখতে পাই। এসময় ডাক-চিৎকার দিলে গ্রামবাসী জড়ো হয়ে জাল টেনে ও রশি দিয়ে বেঁধে ধরে স্কুল মাঠে নিয়ে আসা হয়। বন ও পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী তালুকদার হাবিবুন নাহারকে জানানো হয় বিষয়টি। তিনি বন বিভাগের কর্মকর্তাদের পাঠান।

তিনি আরও বলেন, আমাদের ৮টি হাঁস ও ৬ টি মুরগি পাওয়া যাচ্ছিল না। ধারণা করা হচ্ছে ওই কুমিরটি হাঁস ও মুরগি খেয়ে ফেলেছে।

আবুল বাশার নামে একজন বলেন, পশুর নদী থেকে জোয়ারের সময় কুমিরটি হয়তো স্থানীয় কচুয়ার খালে ঢুকে পড়ে। পরবর্তীতে কুমিরটি পুকুরে আশ্রয় নিয়ে নিয়ে হাঁস ও মুরগি খেয়ে ফেলে। কুমিরটির যাতে ক্ষতি না হয় সে জন্য সতর্কভাবে বেঁধে রেখে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

সায়লা বেগম নামে এক নারী বলেন, কুমির দেখতে খানজাহান আলী (র.) মাজার বা সুন্দরবনে যেতে হতো। আজ আমাদের গ্রামে কুমিরটি ধরা পড়ায় এলাকার মানুষ পরান ভরে দেখেছে। অনেকে গায়ে হাত বুলিয়েছে। আমরা কুমির দেখতে পেরে খুশি হয়েছি।

সুন্দরবন পূর্ব বন বিভাগের করমজল বন্য প্রাণি প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজাদ কবির বলেন, পুকুর থেকে কুমির আটক করা হয়েছে গ্রামবাসীর কাছ থেকে এমন খবর পেয়ে কুমিরটিকে উদ্ধারের জন্য ঘটনাস্থলে যাই। কুমির যেহেতু হিংস্র প্রাণি সতর্কতার সঙ্গে গাড়িতে তুলে বনে নিয়ে আসি। সুন্দরবন সংলগ্ন পশুর নদীতে অবমুক্ত করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.