মটর শ্রমিকদের দুই গ্রুপের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, ৩ জন শ্রমিক আহত

আবু হাসান (আকাশ),লালমনিরহাট:
লালমনিরহাটে মটর শ্রমিকদের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই গ্রুপের মধ‌্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও মহাসড়ক অবরোধের ঘটনা ঘটে । এ সময় ৩ জন শ্রমিক আহত হয়েছে। রোববার(২০ মার্চ) রাত ৮ টার দিকে লালমনিরহাট পুলিশ লাইনসে বাস টার্মিনাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘ দিনের পুরাতন কমিটি দিয়ে চলছে লালমনিরহাট বাস মিনিবাস শ্রমিক সংগঠন। পুরাতন কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক শ্রমিকদের কার্যালয়ের জন্য ক্রয় করা জমি গোপনে বিক্রি করে দেন। বিষয়টি জানাজানি হলে সাধারন শ্রমিকদের মাঝে ক্ষোভ তৈরী হয় এবং দুইটি ভাগে বিভক্ত হয় শ্রমিকরা। পুরাতন ও মেয়াদত্তীর্ন কমিটি বিলুপ্তের দাবিতে রোববার দুপুরে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে সাধারন শ্রমিকরা। এতে বর্তমান কমিটি বাঁধা দিলে দুই পক্ষের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে ৩জন আহত হন। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।

এ ঘটনায় বিকেলে শিফাত হোসেন মুন্না নামে একজন সাধারন শ্রমিক বাদি হয়ে বর্তমান কমিটির সম্পাদক বুলবুল আহমেদকে প্রধান করে ৬ জনের বিরুদ্ধে লালমনিরহাট সদর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এরই জের ধরে রাত ৮টার দিকে বর্তমান কমিটি গ্রুপের কতিপয় শ্রমিক শহরে দেশি অস্ত্র নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বাসটার্মিনালের দিকে যাচ্ছিল। মিছিলটি পুলিশ লাইনসের সামনে বিনিময় ফিলিংস স্টেশনের অফিসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। খবর পেয়ে সাধারন শ্রমিকরা ছুটে এলে পিছু হটে বর্তমান কমিটির শ্রমিকরা। বিনিময় ফিলিংস স্টেশন ভাঙচুরের প্রতিবাদে ও বিচারের দাবিতে সাধারন শ্রমিকরা লালমনিরহাট বুড়িমারী মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে।

এ সময় ঢাকা গামি নৈশ্যকোচ গুলো আটকা পড়ে। ফলে চরম বিপাকে পড়েছে নৈশ্যকোচের যাত্রীরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে চলে যান অতিরিক্তি পুলিশ সুপার(এ সার্কেল) মারুফা জামান। তিনি শ্রমিকদের সাথে কয়েক দফায় কথা বলে রাতের মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে রাত সোয়া ৯টার দিকে শ্রমিকরা অবরোধ তুলে নেয়।

লালমনিরহাটের অতিরিক্তি পুলিশ সুপার(এ সার্কেল) মারুফা জামান জানান, অপরাধীদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিলে সাধারন শ্রমিকরা তাদের অবরোধ তুলে নেয়। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.