ফরিদপুরে বোয়ালমারীতে উচ্ছেদ আতংকে একটি পরিবার

ফরিদপুর প্রতিনিধি:
ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে উচ্ছেদ আতংকে দিন পার করছে অসহায় একটি পরিবার। দীর্ঘদিন ধরে পরিবারটি স্থানীয় প্রভাবশালীদের দ্বার নির্যাতিত হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছে জমির মালিক আলেয়া বেগম।

শুক্রবার দুপুরে সরোজমিনে গিয়ে দেখা য়ায় বোয়ালমারী পৌরসভার ১০৪ নং শিবপুর মৌজার হাল দাগ ২৭২৯ নং দাগের ক্রয়কৃত ৫শতাংশ জমিতে স্থানীয় প্রভাবশালীরা ভাড়া দেওয়ার জন্য সাইনবোর্ড টানিয়ে দিয়েছে।

এবিষয়ে জমির মালিক আলেয়া বেগম বলেন, আমি ২০০৯ সালে বায়না মূলে মোজাহার মোল্যার কাছ থেকে জমি ক্রয় করি। এরপর ২০১৭ সালে বিজ্ঞ জেলা জজ ১ম আদালতের দেওয়ানী ৩২/২০০৯ নং মোকদ্দমার রায় ডিক্রি অনুসারে খাস কবলা দলিলের মুসাবিদা ক্রমিক নং ১৫১৮ যার দলিল নং ১৫১৭ মূলে জমি ক্রয় করি। এই জমি থেকে স্থানীয় প্রভাবশালী টোকন গংরা আমাকে নানা ভাবে উচ্ছেদের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। গত বৃহস্পতিবার রাতে আমার বাড়িতে হামলা চালায় পরে পুলিশ আসলে তারা চলে যায়। তিনি বলেন আমার পরে কেনা আরো দেড় শতাংশ জমি কিনেছি সেগুলো তারা দখল করে নিয়েছে। এখন যেকোন সময় তারা আমাদের হামলা চালিয়ে পরিবারসহ সড়িয়ে দিতে পারে। আমি সরকারের কাছে নিরপেক্ষ বিচার প্রার্থনা করছি।

এ ব্যাপারে কামরুজ্জামান টোকন জানান, আমার বিরুদ্ধে এসব অভিযোগ মিথ্যা। এই জমির দাগে মোট ২৯ শতাংশ জমি রয়েছে। সেখানে আড়াই শতাংশ জমি কম রয়েছে দাগে। এই জমি তারা আমার ভিতর ঢুকে ঘর তুলেছে। তারা জমির দলিল করলেও এখন পর্যন্ত মিউটেশন করতে পারেনি। আইনগত ভাবে তারা জমি পাবেনা এখানে। হামলার ব্যাপারে তারা যে কথা বলছে এ গুলো সঠিক নয়।

এ বিষয়ে বোয়ালমারী থানার অফিসার ইনর্চাজ মোঃ নুরুল ইসলাম বলেন, দুই পক্ষ প্রতিনিয়ত জমি নিয়ে গোন্ডগোল করছে। মানবিক পুলিশ হিসেবে প্রতি মূহুর্তে কল পেলেই সেখানে যাচ্ছি আমরা। জমির বিষয়টি আদালত দেখার কথা। তবে আইন শৃংখলার কোন অবনিত হলে পুলিশ যথাযথ আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করবে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.