ছুটির দ্বিতীয় দিনে কুয়াকাটায় উপস্থিত হাজার পর্যটক

জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, কুয়াকাটা:
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিন এবং আজ শবে বরাত। সব মিলে ১৭ থেকে ১৯ মার্চ পর্যন্ত তিনদিন সরকারি ছুটিকে সামনে রেখে ব্যস্ত সময় পার করছে কুয়াকাটার পর্যটন ব্যবসায়ীরা। টানা তিন দিনের ছুটির দ্বিতীয় দিনে পর্যটকে ভরপুর কুয়াকাটা। ১৮/০৩/২০২২ (শুক্রবার) সাপ্তাহিক ছুটি থাকার কারণে হাজার হাজার পর্যটকরা আনন্দমেলায় মেতে উঠেছে সমুদ্র সৈকতে। ৯৯ শতাংশ বুকিং রয়েছে আবাসিক হোটেল মোটেল, পর্যটকে উপস্থিতিতে ব্যস্ততার সময় কাটাচ্ছে হোটেল কর্মচারীরা।

কুয়াকাটা আগত পর্যটকদের মানসম্মত খাবার পরিবেশন করার জন্য ব্যস্ত রয়েছে কুয়াকাটা রেষ্টুরেন্টগুলো। এছাড়াও পর্যটকদের ভিড় চোখে পড়েছে শুঁটকি মার্কেট, ঝিনুক মার্কেট, আচার মার্কেট সহ পর্যটকদের ঘোরাঘুরি নিয়ে ব্যস্ত মোটর বাইক চালক, অটো ভ্যান চালক ও ইজি বাইক ড্রাইভার।

খুলনা থেকে আসা পর্যটক,মোঃ সাজ্জাদ হোসেন বলেন, সকাল ছয়টার সময় গাড়ি থেকে নেমে আবাসিক হোটেলের খুঁজতে বের হই, এখন পর্যন্ত ২০টির মত আবাসিক হোটেলে গিয়েছি কোথাও রুম পাইনি। তবে কয়েকটি হোটেল বলেছে ১২টার পরে তাদের রুম খালি হবে, সেই অপেক্ষায় আছি। আমি লক্ষ করলাম আমার মত অনেক মেহমান রুম খুঁজছে।

হাই হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট  মালিক,মোঃ হাই শিকদার সাংবাদিকদের বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে পর্যটকদের আগমন শুরু হয়েছে, প্রচুর পরিমাণ পর্যটক উপস্থিত হয়েছে কুয়াকাটায়। আমরা বেচাবিক্রি নিয়ে ব্যস্ত আছি, আশা করছি পদ্মা সেতু চালু হলে এভাবেই পর্যটকদের উপস্থিত থাকবে কুয়াকাটায়।

হোটেল সমুদ্র বিলাস আবাসিকের পরিচালক, ইসমাইল ইমন জানান, পর্যটকের অনেক  উপস্থিতি কুয়াকাটায়। বর্তমানে আমাদের হোটেল বুকিং তারপরও পর্যটকরা ফোনের মাধ্যমে শনিবারের জন্য রুম বুকিং দিচ্ছে, ইতিমধ্যেই শনিবারের জন্য ৫০শতাংশ রুম বুকিং দিয়েছি।

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন আব কুয়াকাটা টোয়াক, সভাপতি রুমান ইমতিয়াজ তুষার আমাদের প্রতিনিধিকে বলেন, মার্চ মাসে পর্যটন মৌসুমের শেষ মাস ধরা হলেও পায়রা সেতু ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের কারনে আগামী এপ্রিল মাসজুড়ে পর্যটকে টইটম্বুর থাকবে কুয়াকাটা। আমরা ট্যুর অপারেটররা সবসময় প্রস্তুত রয়েছি পর্যটকদের সেবা দেওয়ার জন্য।

ট্যুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোন পুলিশ পরিদর্শক হাসনাইন পারভেজ জানান, টানা তিন দিনের ছুটিতে পর্যটকদের মিলন মেলা ঘটছে কুয়াকাটায়, আগত পর্যটকদের জন্য আমরা বাড়তি নিরাপত্তা জোরদার করেছি। এবং আমরা সার্বক্ষণিক নজড়দারি ও মাইকিং করে বারবার মাস্ক পড়া, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ পর্যটকদের নিরাপদে থাকার নির্দেশ দেয়া হচ্ছে।।

Leave a Reply

Your email address will not be published.