ঢাবির জিয়া হলে শহীদ মিনার চায় ছাত্রলীগ

ঢাবি প্রতিনিধি:
বাংলা ভাষার জন্য জীবন উৎসর্গকারিদের স্মরণে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলে শহীদ মিনার স্থাপনের দাবিতে স্মারকলিপি প্রদান করেছে ছাত্রলীগের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল শাখার নেতাকর্মীরা।

আজ সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) নেতাকর্মীদের দাবির প্রেক্ষিতে মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেনের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করে হল শাখা ছাত্রলীগের নব-নির্বাচিত সভাপতি আজহারুল ইসলাম মামুন ও সাধারণ সম্পাদক হাসিবুল হোসেন শান্ত ।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, বাঙ্গালির অধিকার প্রতিষ্ঠায়, স্বার্থ রক্ষায় এবং স্বাধীনতা অর্জনের সুদীর্ঘ লড়াইয়ের যে বিস্তৃত ইতিহাস তার বিশাল প্রেক্ষাপটে ততোধিক বিশালত্ব নিয়ে বিরাজিত একটি নাম শেখ মুজিবুর রহমান। তার চিন্তা-চেতনায় ছিল মাতৃভাষার মর্যাদা ও স্বীকৃতি বিধানের সংকল্প। বাঙালিদের জন্য একটি স্বতন্ত্র রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার সংকল্প ও সংগ্রামে চেতনায় তিনি ছিলেন আমৃত্যু আপোষহীন, কঠোর।

এতে আরো বলা হয়, একুশ ছিল ক্রোধ আর সংগ্রামের। যে সংগ্রামে সালাম, রফিক, জব্বার, বরকতসহ আরো অনেক ভাষা সৈনিকের রক্তের বিনিময়ে অর্জিত হয়েছে আমাদের রাষ্ট্রভাষা। তাদের আত্মত্যাগের ইতিহাস প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে ছড়িয়ে দেয়ার দায়িত্বও আমাদের। ভাষা সৈনিকদের আত্মত্যাগের প্রদীপ্ত ইতিহাস এই শহীদ মিনার। আমাদের বিশ্বাস প্রজন্মের কাছে ইতিহাসের প্রদীপ ছড়িয়ে দেয়া যেতে পারে শিক্ষাঙ্গনে শহীদ মিনার স্থাপনের মাধ্যমে।

এ বিষয়ে হল ছাত্রলীগ সভাপতি আজহারুল ইসলাম মামুন বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিটি হলে শহীদ মিনার রয়েছে।আমরা মনে করি শহীদদের স্মরণে শহীদ মিনার একটি অন্যতম স্থাপনা। এজন্য আমরা চাই এই হলে একটি শহীদ মিনার স্থাপন করা হোক। শিক্ষার্থীদের চাওয়া পূর্ণ হোক।

সাধারণ সম্পাদক এবং হল সংসদের সাবেক জিএস হাসিবুল হোসেন শান্ত বলেন, ভাষা শহীদদের জন্য আজকে আমরা বাংলা ভাষায় কথা বলতে পারছি। তাই আমরা চাই আমাদের হলে তাদের সম্মান জানিয়ে শহীদ মিনার স্থাপন করা হোক। এটা হলের সকল ছাত্রের প্রাণের দাবি। এজন্য হল ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করছি।

হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ বিল্লাল হোসেন বলেন, এটা খুব ভালো একটা উদ্যোগ। অনেক হলেই শহীদ মিনার আছে। আমরা এই বিষয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *