চাকরি দেওয়ার প্রলোভনে ধর্ষণ করে ভারত পালাতে চেয়ে ছিলেন সেই যুবলীগ নেতা-পিবিআই

নোয়াখালী প্রতিনিধি:
চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে স্বামী পরিত্যক্ত তরুণীকে ধর্ষণ ও ধর্ষণের ঘটনার ভিডিওচিত্র ধারণের ঘটনায় অভিযুক্ত নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার পাঁচগাঁও ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফুয়াদ আল মতিন (৩৮) ভারত পালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন বলে জানিয়েছে মামলার তদকারী সংস্থা পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশন (পিবিআই)।

মঙ্গলবার (২২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পিবিআইর নোয়াখালী কার্যালয়ে আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান পিবিআই, কুমিল্লার পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান। এ সময় পিবিআই নোয়াখালী কার্যালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গতকাল সোমবার কুমিল্লার কান্দিরপাড় এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে পিবিআই।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পিবিআইর পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান বলেন, চাটখিল উপজেলার পাল্লা বাজারে স্বামী পরিত্যক্ত তরুণী ধর্ষণের শিকার হওয়ার ঘটনাটি গণমাধ্যমে প্রচার হওয়ার পর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে ধরতে পিবিআই কুমিল্লা ছাড়াও আশেপাশের ইউনিট গুলো তৎপর হয়।

পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জানান, অনুসন্ধানের এক পর্যায়ে প্রযুক্তির ব্যবহার করে এবং গোপন সংবাদে জানতে পারেন অভিযুক্ত ফুয়াদ আল মতিন কুমিল্লা হয়ে ভারত পালিয়ে যাবেন। ওই তথ্য পাওয়ার পর তাঁরা কুমিল্লায় বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে খোঁজ নেওয়া শুরু করেন।

এক পর্যায়ে জানতে পারেন কুমিল্লা শহরের কান্দিরপাড় এলাকার আবাসিক হোটেলে ফুয়াদ আল হাসান তাঁর নাম পাল্টে মাসুদ রানা উল্লেখ করে রোববার সন্ধ্যায় একটি কক্ষ ভাড়া নেন। এরপর পিবিআই’ কুমিল্লার একদল সদস্য হোটেল আল-রাফির পাশে থেকে সোমবার সকালে গ্রেপ্তার করে বলে উল্লেখ করেন পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান।

প্রেস ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গ্রেপ্তার ফুয়াদ আল মতিন প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তরুণীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ ও ভিডিওচিত্র ধারণের কথা স্বীকার করেছেন। তাঁকে আজ মঙ্গলবারই আদালতে হাজির করা হবে। পিবিআইর পরিদর্শক সিরাজুল মোস্তফা মামলাটি তদন্ত করবেন।
প্রসঙ্গত, গত রোববার সকালে স্বামী পরিত্যক্তা তরুণীকে (২৩) চাকরি দেওয়ার কথা বলে চাটখিল উপজেলার পাল্লা বাজারের একটি বিমা কোম্পানির কার্যালয়ে ডেকে নেন পাঁচগাঁও ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফুয়াদ আল মতিন। তিনি ওই তরুণীকে নাস্তা ও কোমল পানীয় খেতে দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *