ফরিদপুরের নগরকান্দায় গাঁজা সেবনে বাধা দেয়ায় হামলার অভিযোগ মহিলাসহ আহত-৭

মাহবুব পিয়াল,ফরিদপুরঃ
ফরিদপুরের নগরকান্দায় গাঁজা সেবনে বাধা দেয়ায় মুদি দোকানদারের উপর হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে মহিলাসহ অন্তত ৭ জন আহত হয়েছেন। ঐ মুদি দোকানদার নগরকান্দা পৌরসভার মধ্য জগদিয়া গ্রামের সামচু মাতুব্বর।

অভিযোগে জানা গেছে, পৌর এলাকার মধ্য জগদিয়া গ্রামে বাড়ীর পাশে মুদি দোকান করেন ঐ গ্রামের সামচু মাতুব্বর। তার দোকানের পাশে বসে মাদক সেবন করে এলাকার কিছু বকাটে কিশোরেরা। বারবার নিষেধ করলেও তা তোয়াক্কা করছে না কিশোররা। শুক্রবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাতে আবারও মাদক সেবনে আসোর বসালে তাতে বাধা দেয় সামচু মাতুব্বর। এতে ক্ষীপ্ত হয়ে তার উপর হামলা করে মাদক সেবনকারীরা। তাকে বাচাঁতে এগিয়ে আসেন তার স্ত্রী, ছেলে, ছেলের বউ। এ সময় হামলাকারীরা তাদেরকেও মারপিট করে। এ হামলা প্রতিহত করতে গেলে উভয়ের পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বাধে। খবর পেয়ে নগরকান্দা থানা পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন। এতে উভয় পক্ষের মহিলা সহ কমপক্ষে ৭ ব্যক্তি আহত হয়। আহতদের নগরকান্দা উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে সামচু মাতুব্বর, রিজিয়া বেগম, পলাশ ও মনোয়ারা বেগমকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

সামচু মাতুব্বর বলেন, প্রতিদিন আমার দোকানের পিছনে গ্রামের কাঞ্চন শেখের ছেলে প্রান্ত শেখের নেতৃত্বে মাদক সেবনের আড্ডা বসায়। আমি বাধা দেওয়ায় আমার উপর হামলা চালায়। এসময় আমার স্ত্রী, ছেলে ও ছেলের বউকে মারপিট করে।

কাঞ্চন শেখের ছেলে সাইদুল শেখ জানায়, আমার ছোট ভাই প্রান্তর সাথে সামচু মাতুব্বর ঝগড়া করছে। আমি খবর পেয়ে ওখানে গেলে ওরা আমাকে মারপিট করে।

থানা অফিসার ইনচার্জ হাবিল হোসেন বলেন, সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এনেছে। এখনো কোন পক্ষের লিখিত অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মাদক সেবনের বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.