সেন্টমার্টিন দ্বীপের ৪টি ফিশিং ট্রলার ২৩ জন মাঝি—মাল্লাসহ ধরে নিয়ে গেছে মিয়ানমারের নৌ—বাহিনী

এইচ এম আল আজাদ: সেন্টমার্টিন
সেন্টমার্টিনদ্বীপের পুর্বে বঙ্গোপসাগর থেকে ৪টি বাংলাদেশী ফিশিং ট্রলার মিয়ানমারের নৌ—বাহিনী ধরে নিয়ে গিয়েছে। ট্রলার ৪টিতে ২৩ জন মাঝি—মাল্লা ছিল। অপহৃত ৪টি ফিশিং ট্রলারের মালিক সেন্টমার্টিনদ্বীপের বাসিন্দা।

অপহৃত ফিশিং ট্রলারের মালিকদের উদ্ধৃতি দিয়ে সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ নুর আহমদ ২০ নভেম্বর বেলা সোয়া ২টায় জানান, সেন্টমার্টিনদ্বীপের বাসিন্দা আজিম আহমদের মালিকানাধীন ফিশিং ট্রলার ৭ জন মাঝিমাল্লাসহ, নুরুল আমিনের মালিকানাধীন ফিশিং ট্রলার ৪ জন মাঝিমাল্লাসহ, দক্ষিণপাড়ার হোছন আহমদের মালিকানাধীন ফিশিং ট্রলার ৬ জন মাঝিমাল্লাসহ, মোঃ ইউনুচের মালিকানাধীন ফিশিং ট্রলার ৬ জন মাঝিমাল্লাসহ সেন্টমার্টিনদ্বীপের পুর্বে বঙ্গোপসাগরের বাংলাদেশ জলসীমানায় কাছাকাছি অবস্থানে সাগরে জাল ফেলে মাছ শিকার করছিল। ২০ নভেম্বর সকাল ১১টার দিকে মিয়ানমারের নৌ—বাহিনী স্পীডবোট যোগে এসে প্রথমে আজিম আহমদ ও নুরুল আমিনের মালিকানাধীন ফিশিং ট্রলার ২টি ১১ জন মাঝিমাল্লাসহ ধরে নিয়ে যায়। আবার দুপুর সাড়ে বারটার দিকে পুনরায় এসে হোছন আহমদ ও মোঃ ইউনুচের মালিকানাধীন ফিশিং ট্রলার ২টি ১২ জন মাঝিমাল্লাসহ ধরে নিয়ে যায়। বিষয়টি কোস্টগার্ড, বিজিবি ও বাংলাদেশ নৌবাহিনীকে অবহিত করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *