শিবচরে স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

এমএম জায়েদ ইবনে শহিদ, শিবচর, মাদারীপুর:
মাদারীপুরের শিবচরে গলায় ফাঁস দিয়ে কেয়া মণি (১৬) নামে এক স্কুল ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্ববর) সকাল ১০ ঘটিকায় শিবচর উপজেলার উমেদপুর ইউনিয়নের ডিগ্রিরচর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। কেয়া মণি ওই গ্রামের মো: হারুন মাদবরের মেয়ে। সে স্থানীয় ভদ্রাসন জিসি একাডেমির ১০ শ্রেণীর মানবিক শাখার ছাত্রী। স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ডিগ্রিচর গ্রামের হারুন মাদবরের দশম শ্রেনী পড়ুয়া কেয়া মনি (১৬) বৃহস্পতিবার সকালে তার নিজ ঘরে বারান্দার চালের কাঠের সাথে গলায় উড়না পেচিয়ে আত্নহত্যা করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থল থেকে তার লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। নিহতের পিতা মো: হারুন মাদবর জানান, আমর মেয়ের সাথে দীর্ঘদিন নিজাম নামের এক ছেলের সাথে প্রেম ছিল। বিষয়টি কেয়া মনির বান্ধবীর সূত্রে জানতে পারি। নিজাম গতকাল তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করলে আমার মেয়ে আত্মহত্যা করে। আমি নিজামের কঠিন শাস্তি চাই যাতে নিজামের মতো কারো কারনে আর কোন বাবার বুক খালি না হয়।

শিবচর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এস.আই) রাম প্রসাদ জানান, মৃত স্কুল ছাত্রীর হাতে ব্লেড দিয়ে বেশ কয়েক জায়গায় কাটা দাগ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারনা করা হচ্ছে প্রণয়ঘটিত ব্যর্থতার কারণে সে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে। ছাত্রীর পিতা-মাতা দাবি করেছেন যে নিজাম নামের এক ব্যক্তির সাথে প্রেম ছিল সে বিয়ে করতে রাজি না থাকায় সে আত্মহত্যা করেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: মিরাজ হোসেন বলেন, খবর পেয়ে দুপুর ৩ টার দিকে মেয়েটির বাড়ি থেকে মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মরদেহটি ময়নাতদন্ত করার জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হবে। এছাড়া পরিবার থেকে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *