বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে সংকটাপন্ন জলহস্তী শাবক

টি.আই সানি, গাজীপুর প্রতিনিধিঃ
গাজীপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে উভচর ও বিশ্বে সংকটাপন্ন প্রাণী হিসেবে পরিচিত জলহস্তীর একটি শাবক জন্ম নিয়েছে। আগে আরও দুটি শাবকের জন্ম হলেও সেগুলো বাঁচেনি। প্রায় চার সপ্তাহ বেঁচে থাকায় এবারের শাবকটি নিয়ে অনেক প্রত্যাশা কর্তৃপক্ষের।

পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও সহকারী বন সংরক্ষক তবিবুর রহমান তথ্যটি নিশ্চিত করে জানান, মাঝে মধ্যে শাবকটি জলহস্তী বেষ্টনীর ভেতরে ডাঙ্গায় উঠে আসছে। এখনও পর্যন্ত হস্তি শাবকটির লিঙ্গ শনাক্ত করা যায়নি। এটি শনাক্ত করতে আরও কিছুদিন সময় লাগতে পারে। বর্তমানে পার্কে নতুন শাবকসহ জলহস্তির সংখ্যা তিনটি। নিবিড় পর্যবেক্ষনের কারণে নতুন শাবকের বিষয়টি কাউকে সেভাবে জানানো হয়নি।

পার্ক সুত্র জানায়, পৃথিবীর দ্বিতীয় সর্ববৃহৎ আধা জলজ স্তন্যপায়ী প্রাণী হিসেবে জলহস্তীকে চিহ্নিত করা হয়ে থাকে। সর্বোচ্চ সাড়ে তিন মিটার দৈর্ঘ্য ও দেড় মিটার উচ্চতার এ প্রাণীটির ওজন হয়ে থাকে তিন হাজার দুই’শ কেজি পর্যন্ত। আফ্রিকাতে এদের বেশি দেখা গেলেও বিশ্বের অন্যান্য দেশেও এদের দেখতে পাওয়া যায়। আফ্রিকায় গরম বেশি থাকায় নদী এবং লেকের পাশে এরা বসবাস করে। নাক, কান-মাথা ভাসিয়ে রেখে এরা সহসাই নিজেদের শরীর জলে ডুবিয়ে রাখতে পারে। নিশাচর এ প্রাণী তৃণভোজী খাবার খেয়ে থাকে এবং রাতের বেলায় খাবারের সন্ধান বের হয়। পছন্দের তৃণভোজী নিকটে পেলে সর্বোচ্চ ৩৫ কেজি খাবার একত্রে খেতে পারে। এরা দক্ষ সাঁতারু, পানির নিচে সর্বোচ্চ পাঁচ মিনিট পর্যন্ত ডুবে থাকতে পারে। পানিতে ডুবার পর নাক কান স্বংয়ক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যায়। ১০ থেকে ২০টি জলহস্তী সঙ্ঘবদ্ধ থাকে ও সিংহ, হায়েনা, কুমির এবং হিংস্র প্রাণীর আক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে মাঝে মধ্যে ক্ষমতা প্রদর্শনের জন্য ডিসপ্লে করে থাকে। এরা দুই বছর পর পর ১০ মাসের গর্ভধারণে শাবক জন্মদান করে।

সাফারি পার্কের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তবিবুর রহমান বলেন, দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে জলহস্তি দুটি আনা হয়। বছর ছয় আগে দুটি শাবকের জন্ম হলেও বাঁচানো যায়নি। এবারের শাবকটির বয়স প্রায় এক মাস। প্রত্যাশা করছি এ শাবকটি বাঁচবে। শাবকটিকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। মা জলহস্তীর সাথে কচুরীপানার ভেতরে দিয়ে উঁকিঝুঁকি দিচ্ছে। তাদের বাড়তি খাবার দেয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *