৪৩তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে প্রশাসনের  বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ 

খলিলুর রহমান জীম, ইবি প্রতিনিধি:
আগামী ২২ নভেম্বর ৪৩তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপন  উপলক্ষে কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছেন। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন, বর্ণাঢ্য র‌্যালি, আলোচনাসভা, কেক কাটা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।  

দিবসটি উপলক্ষ্যে আগামী ২২ নভেম্বর সকাল ১০টা ৩০মিনিটে প্রশাসন ভবন চত্বরে জাতীয় পতাকা ও বিশ^বিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করা হবে। জাতীয় পতাকা উত্তোলন করবেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম এবং বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করবেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান। এসময় তাঁর সাথে থাকবেন ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মোঃ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া এবং সম্মানিত রেজিস্ট্রার (ভারঃ) মু. আতাউর রহমান। একই সময়ে প্রভোস্টগণ স্ব-স্ব  হলে জাতীয় পতাকা ও হল পতাকা উত্তোলন করবেন।

 

পতাকা উত্তোলন শেষে শান্তির প্রতীক পায়রা ও আনন্দের প্রতীক বেলুন উড়িয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম ৪৩তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবসের কর্মসূচি উদ্বোধন করবেন। উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান, ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মোঃ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, রেজিস্ট্রার (ভারঃ) মু. আতাউর রহমানসহ সকল পর্যায়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীবৃন্দ এসময় সেখানে উপস্থিত থাকবেন।

  

কর্মসূচি উদ্বোধন শেষে প্রশাসন ভবন চত্বর থেকে উপাচার্যের নেতৃত্বে উপ-উপাচার্য, ট্রেজারার ও রেজিস্ট্রার (ভারঃ)-এর উপস্থিতিতে বর্ণাঢ্য র‌্যালি শুরু হবে। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল পর্যায়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীবৃন্দ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করবেন। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বাংলা মঞ্চে এসে শেষ হবে। 

র‌্যালি শেষে ৪৩তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে বাংলা মঞ্চে আলোচনাসভা ও কেক কাটা  হবে। অনুষ্ঠানে উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন। বিশেষ অতিথি হিসাবে থাকবেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ মাহবুবুর রহমান ও ট্রেজারার অধ্যাপক ড. মোঃ আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া। স্বাগত বক্তব্য প্রদান করবেন রেজিস্ট্রার (ভারঃ) মু. আতাউর রহমান। সভাপতিত্ব করবেন ৪৩তম ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদ্যাপন কমিটির আহ্বায়ক প্রক্টর অধ্যাপক ড. মোহাঃ জাহাঙ্গীর হোসেন। এরপর বাংলা মঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে। 

দিবসটি উপলক্ষে বাদ যোহর কেন্দ্রীয় মসজিদ ও হল মসজিদসমূহে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণরোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কর্মসূচিসমূহে অংশগ্রহণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও ছাত্র-ছাত্রীদের বিশেষভাবে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *