শ্রীপুরে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধিঃ
গাজীপুরের শ্রীপুরে চলাচলের সড়কের উপর ইটের দেয়াল নির্মাণ করার অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের পশ্চিম সোনাব গ্রামে এ ঘটনায গটে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ এক মুক্তিযোদ্ধাসহ প্রাই ১৫ থেকে ২০ পরিবারের চলাচলের রাস্তা বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছেন পরিবার গুলো।

পুর্ব শত্রুতার জেরধরে এই চলাচলের রাস্তায় প্রাচির নির্মাণ করে বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। এব্যাপারে ওই এলাকার মৃত উছুম উদ্দিনের ছেলে পুলিশ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ এরনাম উল্লেখ করে গাজীপুর -৩ আসনের সংসদ সদস্য ও গাজীপুর জেলা পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মকবুল হোসেন।

আবুল কালাম আজাদ বর্তমানে ময়মনসিংহের ভালুকা মডেল থানায় উপ-পরিদর্শক (এসআই) পদে কর্মরত রয়েছেন। রাস্তার অধিকার নিয়ে তার বিরুদ্ধে এলাকার দুইশত মানুষ গণসাক্ষর দিয়েছেন। ওই সাক্ষরসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত দরখাস্ত জমা দিয়েছে।

কাওরাইদ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এডভোকেট আজিজুল হক আজিজ নিজে সমাধানের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন বলে জানান এলাকাবাসি।পুলিশ কর্মকর্তার বিষয়টি সমাধানের জন্য তিনি উপজেলার আইনশৃঙ্খলা মিটিং এ সুপারিশ করে বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি আরো বলেন,আমার আগের চেয়ারম্যানরাও বিভিন্ন সময়ে ওই সড়কে মাটি ফেলাসহ সংস্কার করেছে।

স্থানীয়রা বলছেন, পুলিশ কর্মকর্তা আবুল কালামের সহোদর বোন জোবেদা খাতুন ও তাঁর স্বামীর সাথে জমি নিয়ে বিরোধ থাকার কারণে এমন ঘটনা ঘটানো হয়েছে, আর এতে দুর্ভোগে পড়েছে এলাকাবাসীরা । দীর্ঘ দিন ধরে চলাচলের সড়ক বন্ধ করে দেওয়ায় এলাকার স্কুল কলেজ শিক্ষার্থী ও এলাকার অসুস্থ মানুষ হাসপাতালে নেওয়া সমস্যা এবং চলাচলে অসুবিধা হচ্ছে। কেউ প্রতিবাদ করতে গেলে কালাম দারোগা মিথ্যা মামলা মোকাদ্দমা দিয়ে হয়রানি করে এমন অভিযোগও করেন এলাকাবাসির অনেকেই।

ছাত্র-ছাত্রীরা জানান, রাস্তা বন্ধ করে দেওয়ায় বিদ্যালয়ে অনেক পথ ঘুরে যেতে হয়। মাঝেমধ্যে কালাম দারোগার পরিবার গালিগালাজ করে এবং এই পথ দিয়ে যেতে নিষেধ দেন।

পুলিশ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ রাস্তা দখলের বিষয়ে অস্বীকার করে জানান, আমার ক্রয়কৃত জোত জমিতে বাউন্ডারী নির্মাণ করেছি। বিষয়টি উপজেলা ভূমি অফিস এবং কাওরাইদ ইউনিয়ন ভূমি অফিস অবগত আছেন। তার জমিতে জোড় পূর্বক রাস্তা তৈরি করার বিষয়ে বিভিন্ন দপ্তরে বাদী হয়ে অভিযোগ করেছেন বলেও জানান ওই পুলিশ কর্মকর্তা।

এলাকার সচেতন মহলের দাবি সড়কটি পূর্বের ন্যায় চলাচলের উপযোগী করে দিলে ভুক্তভোগীদের দুর্ভোগ পোহাতে হবে না। স্থানীয় প্রশাসন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ গণমাধ্যমের সহযোগিতায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে তারা এ দাবি জানিয়েছেন।

শ্রীপুর উপজেলা সহকারী (ভূমি) কর্মকর্তা উজ্জল কুমার হালদার বলেন, এ ব্যাপারে রোববার (১৪ নভেম্বর) ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে, বিষয়টি তদন্ত চলছে, এ ব্যাপারে তদন্ত পূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *