সেন্টমার্টিন জেটির ভয়াবহ ভাঙন পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক টিম

এইচ এম আল আজাদ, সেন্টমার্টিন:
দেশের এক মাত্র প্রবাল দ্বীপ কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের সেন্টমার্টিনের একমাত্র ভয়াবহ ভাঙন কবলিত জেটি পরিদর্শন করেছেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয় হতে গঠিত পরিদর্শন কমিটি।

সোমবার (১ নভেম্বর) সকালে কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজাস্ব) আমিন আল পারভেজের নেন্তৃন্তে একটি প্রতিনিধি টিম দমদমিয়া পর্যটক ঘাট রওনা দেন। দুপুরে সেন্টমার্টিন ঘাটে পৌছঁলে দ্বীপ বাসীর পক্ষ থেকে ফুল দিলে স্বাগত জানান স্থানীয় চেয়ারম্যান নুর আহাম্মদ সহ প্রশাসনিক কর্মকর্তা বৃন্দ।

পরে কমিটির প্রধান সহ সকলে সেন্টমার্টিন জেটি ঘাটের ভয়াবহ ভাঙন ঘুরে ঘুরে পরিদর্শন করেন। কমিটির প্রধান আমিন আল পারভেজ যায়যায়দিন কে জানান, জেটির অবস্থা নিয়ে সকলের সাথে আলোচনা করে প্রতিবেদন পাঠাব, তবে আগামীতে আগত পর্যটকদের জেটি দিয়ে যাতায়াতের নিরাপত্তার বিষয়ে নিশ্চিত করতে আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পারভেজ চৌধুরী সহ কোস্টগার্ড, ট্যুরিষ্ট ও নৌ পুলিশ, পরিবেশ অধিদপ্তর, পর্যটন ব্যসায়ী, জাহাজ মালিক এবং সাংবাদিক প্রতিনিধি গণ।

সাগরের বুকে আট বর্গকিলোমিটার এলাকার ১০ হাজার জনবলের এক মাত্র টেকনাফ থেকে দ্বীপে আসা যাওয়ার জেটি ঘাট নির্মীত হয়েছিল ১৮ বছর আগে। এর পর থেকে বিভিন্ন বছর ঘূর্ণিঝড়, লবণাক্ত পনির ডেউ ও জলোচ্ছ্বাসের আঘাতে জেটির সিংহভাগই ভয়াবহ ভাঙ্গন ধরলে নজরে আসে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের। তাই স্থানীয়রা ও মৌসুমে আগত পর্যটকরা জেটি ব্যবহার করে নিরাপদে দ্বীপে প্রবেশ করতে পারে সে ব্যবস্থা করতে কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানিয়েছে দ্বীপ বাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *