চৌমুহনীতে মন্দির ভাংচুরের ঘটনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করে সংবাদ সম্মেলন

নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াখালীর চৌমুহনীসহ সারা বাংলাদেশে ধর্মীয় সংখ্যালঘু বিশেষ করে হিন্দু সম্প্রদায়ের এর উপর ঘটে যাওয়া অমানবিক কর্মকান্ড তথা ভাংচুর , অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও হত্যার বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছে নোয়াখালী হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান পরিষদের নেতারা। শনিবার বিকেলে ইসকনের এর সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে বিবিসি বাংলায় দেয়া বক্তব্যের প্রতিবাদে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করেন এবং অবিলম্বে প্রত্যাহারের জন্য জোর দাবি জানান।

এ সময় তারা বলেন, আমরা মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়কে অনুরোধ করব আপনি চৌমুহনীতে এসে দেখে যান ঘটনার ভয়বহতা। আর কি হলে আপনি স্বীকার করবেন মন্দিরে ভাংচুর হয়েছে ও মানুষ খুন হয়েছে? আপনার এই বক্তব্য আমাদের ব্যথিত ও মর্মাহত করেছে। তারা মন্ত্রীর এ বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ জানান।

মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের প্রতি শ্রদ্ধা রেখে বলতে চাই, আপনি অবিলম্বে বিবিসি বাংলায় আপনার দেয়া বক্তব্য প্রত্যাহার করে প্রকৃত দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জন্য সহযোগীতাসহ ক্ষতিগ্রস্থ মন্দির, ব্যাক্তি তথা অসহায়দের পাশে দাড়ানোর আহবান জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব পাপ্পু সাহা, বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের নোয়াখালী জেলার আহ্বায়ক বিনয় কিশোর রায়, অরবিন্দ ,মৃত যতন সাহার স্ত্রী লাকী সাহা,যুব ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক উত্তম দাস , ইসকনের অধ্যক্ষ রসপ্রিয় দাস অধিকারী, বিজয়ের সভাপতি তাপস সাহা প্রমুখ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *