লালমোহনে বেস্ট হোপ ডায়াগনস্টিকে জরিমানা

সাব্বির আলম বাবু, ভোলাঃ
ভোলার লালমোহনে বিনা অনুমোতিতে ডায়াগনস্টিক ব্যবসা করায় এক ডায়াগনস্টিককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও ওই ডায়াগনস্টিকের এক ভূয়া প্যাথলজিস্টকে আটক করে ৭ দিনের কারাদন্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। লালমোহন উত্তর বাজার গোরস্থানের সামনে বেস্ট হোপ ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে এ জরিমানা করেন ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো: জাহিদুল ইসলাম। তবে ডায়াগনস্টিকের মালিককে পাওয়া যায়নি। ওই ডায়াগনস্টিকের মালিক কালমা ইউনিয়নের মো. তরিকুল ইসলাম রনি।

জানা গেছে, উত্তর বাজার গোরস্থানের সামনে বেস্ট হোপ ডায়াগনস্টিকের কার্যক্রম চললেও এ ডায়াগনস্টিকের কোন অনুমোদন নেই। ডায়াগনস্টিকে কয়েকজন মেডিকেল অফিসারের নাম ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন দিলেও ওইসব ডাক্তাররা সেখানে বসেন না। লালমোহন হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডা. আব্দুল্লাহ আল মামুন ও ডা. জংশেদ আলম এদের নাম ব্যবহার করে ডায়াগনস্টিকের ভেতরে ও বাইরে বড় করে বিজ্ঞাপন লাগানো আছে। অথচ এ ডাক্তারগণ জানান, তারা এই ডায়াগনস্টিকে বসেন না। কিন্তু এরপরও তাদের নাম ব্যবহার করা হচ্ছে। তাদেরকে নিষেধ করলেও ক্ষমতার প্রভাবে ডাক্তারদের নাম ব্যবহার করছেন। একইভাবে আরো কয়েকজন ডাক্তারও এখানে বসেন না, কিন্তু তাদের নাম ব্যবহার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জাহিদুল ইসলাম জানান, বেস্ট হোপ ডায়াগনস্টিকে অভিযান চালিয়ে তাদের কোন অনুমোদন পাওয়া যায়নি। তাই ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

এছাড়া মো. রহমান নামে একজনকে আটক করে ৭দিনের কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। সে ওই ডায়াগনস্টিকের ভুয়া প্যাথলজিস্ট। তার কোন কাগজপত্র নেই। রহমানের বাড়ি ভোলার কালিবাড়ি রোড।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *