বাংলাদেশে ভ্যাকসিনের কোন অভাব নেই: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন

মুশফাকুর রহমান সিলেট জেলা প্রতিনিধিঃ
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘বাংলাদেশে করোনা ভ্যাকসিনের কোনো অভাব নেই। বাংলাদেশও টিকা উৎপাদনে যেতে প্রস্তুত। করোনাকালে কূটনৈতিক সফলতা আমার একা নয়। প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনাই সকল দিক-নির্দেশনা দিয়েছেন। তার দূরদর্শীতা, স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং কোভিড-১৯ ম্যানেজমেন্ট কমিটিসহ সংশ্লিষ্ট সকলের অবদানেই আমরা করোনাকালের কূটনীতিতে সফল হয়েছি বলতে হবে। বিশ্বের বহু শক্তিশালী দেশে মৃত্যুর সংখ্যার তুলনায় আমাদের দেশে একেবারেই কম। ভ্যাকসিন কার্যক্রমে বিশ্বে আমরা এগিয়ে রয়েছি। আমরা ভ্যাকসিনের জন্য কোনো টাকা-পয়সা নিচ্ছি না। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ভ্যাকসিন কার্যক্রম সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করা হয়েছে। এটি বাংলাদেশের বড় অর্জন। হাতেগোনা কয়টি দেশ বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিচ্ছে।’

শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে নগরীর বারুতখানায় সিলমার্ট কমপ্লেক্সে সিলেট জেলা প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। করোনাকালে সফল কূটনৈতিক তৎপরতা রাখায় সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মন্ত্রীকে এ সম্মাননা প্রদান করা হয়।

জেলা প্রেসক্লাব সভাপতি আল আজাদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ছামির মাহমুদের পরিচালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য ও সিটি কাউন্সিলর রেজওয়ান আহমদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন।

সুধীনজনদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেডক্রিসেন্ট সোসাইটি ব্যবস্থাপনা পরিষদের সদস্য আব্দুল জব্বার জলিল, সিটি কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ ও ছালেহ আহমদ সেলিম, কোতোয়ালি থানার সহকারী কমিশনার শামসুদ্দীন সালেহ আহমদ চৌধুরীসহ বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার নেতৃবৃন্দ, জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে ক্লাব সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাবেক আহ্বায়ক সালাম মশরুর, সাবেক সাধারণ সম্পাদক লিয়াকত শাহ ফরিদী, মোহাম্মদ মহসীন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সংগ্রাম সিংহ, ফখরুল ইসলাম, ফয়সল আহমদ বাবলু, সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহ দিদার আলম নবেল, মামুন হাসান, এ এইচ আরিফ, হাবিবুর রহমান হাবিব, মোস্তাফিজুর রহমান রোমান, রবি কিরণ সিংহ রাজেশ, মো. নুরুল ইসলাম, আলী আকবর চৌধুরী কোহিনূর, রায়হান উদ্দিন, রণজিৎ কুমার সিংহ, সাবেক ক্রীড়া ও সংস্কৃতি সম্পাদক মো. ওলিউর রহমান, আশরাফ চৌধুরী রাজু, এম আর টুনু তালুকদার, মো. শাহীন আহমদ, নেহার রঞ্জন পুরকায়স্থ, শেখ মো. লুৎফুর রহমান, মো. এনামুল কবীর, ইয়াহইয়া মারুফ, মো. আব্দুল আহাদ, সোহেল আহমদ পাপ্পু, মো. মনিরুজ্জামান রনি, আহমেদ জামিল, বাপ্পা মৈত্র, আতিকুর রহমান নগরী, মৃণাল কান্তি দাস, সোহেল আহমদ, মোখলেছুর রহমান, অমিতা সিনহা।

ক্লাব নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহসভাপতি এস সুটন সিংহ, কোষাধ্যক্ষ মিসবাহ উদ্দীন আহমদ, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি সম্পাদক শংকর দাস, তথ্য ও প্রযুক্তি সম্পাদক সুলতান আহমদ, নির্বাহী সদস্য ইউসুফ আলী ও মিঠু দাস জয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *