কুয়াকাটায় রাখাইনদের প্রবারণা পূর্ণিমা উদযাপন

জাহিদুল ইসলাম জাহিদ,কুয়াকাটা:

পটুয়াখালীর কুয়াকাটায় রাখাইন সম্প্রদায়ের প্রবারণা পূর্ণিমা বুধবার দিনভর বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে। বিকেল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত আকাশে ফানুস ওড়ানোর উৎসব অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

বিভিন্ন রাখাইন পাড়ার সদস্যরা তাদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বৌদ্ধবিহার গুলোতে উৎসবমুখর পরিবেশে দিনটি উদযাপন করছেন।

এই উদযাপন চলবে আজ ২০/১০/২১ তারিখ থেকে  ২২/১০/২১প্রযন্ত, এই উদযাপনে পর্যটকদের উপস্থিতি দেখা গিয়েছে।

 কুয়াকাটার কেরানীপাড়ার রাখাইন বাসীন্দা লুমো রাখাইন জানান, সকালে কুয়াকাটা শ্রী মঙ্গল বৌদ্ধ বিহারে অষ্টমী পালন করা হয়েছে। দিনভর চলছে বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান।

 

 কুয়াকাটা শ্রীমঙ্গল বৌদ্ধ বিহারের যুবক, এক্য বলেন, আনন্দ করে মজা করে এবার ফানুস তৈরি করেছি, প্রতি বছরের তুলনায় এবার আনন্দটা বেশি ফিল করছি, কারণ ২০২০সালে আমরা মহামারী করোনাভাইরাস এর কারণে আনন্দ উৎসব করতে পারিনি, তাই সব আনন্দকে পুষে রেখে ছিলাম এই দিনটির অপেক্ষায়, আমার ধর্মসহ অন্যান্য ধর্মের লোকেরা আমাদের এই উৎসব উপভোগ করছে,বিকেল থেকে রাতভর চলবে ফানুস উৎসব।

 

মিশ্রিপাড়া, পক্ষিয়াপাড়া, বৌলতলীপাড়া, আমখোলা পাড়া, কোম্পানিপাড়া, হাড়িপাড়া, সোনাপাড়াসহ বিভিন্ন রাখাইন পল্লীতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, প্রবারণা পূর্ণিমার অনুষ্ঠানকে ঘিরে রাখাইন সম্প্রদায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। রাখাইন সম্প্রদায়ের যুবকরা ছাড়াও অন্য ধর্মের মানুষও ফানুস উৎসবে মিলিত হয়। প্রবারণা পূর্ণিমার এ অনুষ্ঠানকে ঘিরে পুলিশ প্রশাসনের রয়েছে বিশেষ সতর্ক অবস্থান।

প্রতি বছরের মতো প্রবারণা পূর্ণিমার এই উৎসব পালনে সরকারিভাবে কলাপাড়ার ২৪টি রাখাইন পল্লীর বৌদ্ধ বিহারের প্রত্যেকটিতে ৫০০ কেজি করে চাল বিতরন করা হয়েছে।

মিশ্রিপাড়া সীমা বৌদ্ধ বিহার অধ্যক্ষ উত্তম ভিক্ষু জানান, সকাল থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালিত হয়েছে। সন্ধ্যা থেকে শুরু হবে আকাশে ফানুস ওড়ানোর উৎসব।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক বলেন, রাখাইন সম্প্রদায়ের এই ধর্মীয় অনুষ্ঠান সম্পন্নের জন্য সরকারের দিক থেকে সকল ধরনের সহায়তা করা হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *