পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সেন্ট মার্টিনে পর্যটক পরিবহন বন্ধ

এইচ এম আল আজাদ, সেন্টমার্টিন প্রতিনিধি:
সেন্ট মার্টিনে যাওয়ার জন্য ট্রলারের সন্ধান করছেন পর্যটকেরা। আজ মঙ্গলবার সকালে টেকনাফ পৌরসভার কায়ুকখালীয়া ঘাটে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সেন্ট মার্টিনে পর্যটক পরিবহন বন্ধ ঘোষণা করেছে কক্সবাজার জেলা ও টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ট্রলারে করে সেন্ট মার্টিনে বেড়াতে গিয়ে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ায় পর্যটক আটকে পড়ার ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে প্রশাসন এ ঘোষণা দেয়।

সেন্ট মার্টিন কোস্টগার্ডের স্টেশন কমান্ডার তারেক আহমেদ ও টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) পারভেজ চৌধুরী জানিয়েছেন, চলতি বছরের ৩১ মার্চ থেকে দুটি নৌপথে পর্যটক পরিবহনের কাজে নিয়োজিত ১০টি জাহাজ চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পর্যটক পরিবহনের জন্য কোনো ধরনের অনুমতি দেওয়া হয়নি। নতুন করে অনুমতি দেওয়া হলে আবার জাহাজ চলাচলের মাধ্যমে পর্যটক পরিবহন করতে কোনো ধরনের বাধা থাকবে না।

সরেজমিনে মঙ্গলবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত টেকনাফ পৌরসভার কায়ুকখালীয়া ঘাটে টিকিট কাউন্টারের সামনে পর্যটকদের ভিড় দেখা যায়। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আসা শতাধিক পর্যটক কাঠের ট্রলারে করে সেন্ট মার্টিনে যাওয়ার জন্য সেখানে তাঁরা ভিড় করছিলেন। কিন্তু স্থানীয় প্রশাসনের অনুমতি না থাকায় কোনো পর্যটককে টিকিট দেওয়া হয়নি। ফলে পর্যটকেরা সেন্ট মার্টিনে যেতে পারেননি।শনিবার টেকনাফ পৌরসভার কায়ুকখালীয়া ঘাট থেকে ট্রলার ও স্পিডবোটে করে তিন শতাধিক পর্যটক রাত্রিযাপনের জন্য সেন্ট মার্টিনে যান। এরপর দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া কারণে রোববার ও সোমবার দুদিন নৌপথে সার্ভিস ট্রলার চলাচল বন্ধ থাকায় তাঁরা আটকা পড়েছিলেন। পরে তাঁরা আজ মঙ্গলবার যে যাঁর গন্তব্যে চলে গেছেন।

টেকনাফ পৌরসভার কায়ুকখালীয়া ঘাটে ইজারাদারের টোল আদায়কারী ও টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন নৌপথের সার্ভিস ট্রলার মালিক সমিতির টিকিট বিক্রেতা মো. জোবায়ের বলেন, স্থানীয় প্রশাসনের অনুমতি না থাকায় কোনো পর্যটককে সেন্ট মার্টিনের টিকিট বিক্রি করা হয়নি। ফলে কোনো পর্যটক আজ সেন্ট মার্টিনে যেতে পারেননি। পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত পর্যটক পরিববহন বন্ধ থাকবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *