কিশোরগঞ্জে বর-কনের গাড়ীতে থাকা কনের দাদীর মৃত্যু

মোঃ দেলোয়ার হোসেন, নীলফামারী: 
নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে বরের গাড়ির পেছনের চাকা ফেটে গাড়িতে থাকা কনের দাদি মোহসেনা বেগম (৬৫) নিহত হয়েছেন।

বুধবার  ১২ অক্টেবর রাত আনুমানিক ১২টার দিকে বড়ভিটা বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

নিহত মোহসেনা বেগম জেলার জলঢাকা উপজেলার নেকবক্ত কুঠিপাড়া গ্রামের সামসুল হকের স্ত্রী।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা, মঙ্গলবার রাতে কিশোরগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নের কেশবা গ্রামের বুদা মাহমুদের ছেলে আলিমুল হক (২৩) বরযাত্রীসহ বিয়ে করতে যান পার্শ্ববতী জলঢাকা উপজেলার নেকবক্ত কুঠিপাড়া গ্রামে। সেখানে সোহরাব হোসেনের মেয়ে আফিয়া বেগমের (১৯) সঙ্গে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা শেষে কনেকে নিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন। বর-কনেকে নিয়ে যাওয়া প্রাইভেটকারে কনের দাদি মোহসেনা বেগম (৬৫) ও নানি জোবেদা বেগম (৬৭) দানি বুড়ি হিসেবে কনের সঙ্গে নাতি জামাইয়ের বাড়ি আসছিলেন।

জলঢাকা-কিশোরগঞ্জ মহাসড়ক বড়ভিটা বাজার পৌঁছালে তাদের বহনকারী প্রাইভেট কারটির পেছনের ডান দিকের চাকা ফেটে গাড়িটি রাস্তার ধারে উল্টে যায়। অন্য গাড়ির বরযাত্রীরা দ্রুত তাদের উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়ার পথে কনের দাদী মোহসেনা বেগমের মৃত্যু হয়। 

এ সময় ওই গাড়িতে থাকা বর-কনেসহ ৪ জন আহত হয়েছেন। আহতদের কিশোরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

কিশোরগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়াল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, প্রাইভেট কারটি জব্দ করা হয়েছে। ঘটনার সময় চালক নাঈম (২৫) পালিয়ে যান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *