নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় ১২ জেলের জরিমানা এক জেলের কারাদন্ড, মাছ ও জাল জব্দ

সাব্বির আলম বাবু, ভোলাঃ
ভোলায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকারের দায়ে এ পর্যন্ত  ১২ জেলের জড়িমানা ও এক জেলের কারাদন্ড এবং বিপুল পরিমান অবৈধ জাল জব্দ করা হয়েছে।

জেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নদীতে ইলিশ মাছ শিকারের দায়ে অভিযানের প্রথম দিন ভোলা জেলা চরফ্যশন উপজেলার সামরাজ ঘাট থেকে এক আড়তদার সহ ১১ জেলে ও মেঘনা নদী থেকে ১ জেলেসহ মোট ১২ জেলেকে  ৫৬ হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে ও দৌলতখান উপজেলায় অবৈধ উপায়ে মাছ শিকারের দায়ে এক জেলেকে ১ বছরের কারাদ- প্রধান করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। এছাড়াও জেলার ৭ উপজেলায় অভিযান পরিচালনা করে ৬২ হাজার ৯০০ মিটার অবৈধ জাল জব্দ করা হয়। পাশাপাশি ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার মেঘনা নদী থেকে এক টন ইলিশ বোঝাই একটি ট্রলার জব্দ করা হয়। এবং রাতে বিভিন্ন উপজেলায় ২০০ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়েছে।

এ তথ্য নিশ্চিত করে ভোলা জেলা মৎস্য অফিসার এস এম আজহারুল ইসলাম জানান, ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে সরকারের নিষেধাজ্ঞার। সময় সারাদেশে ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাত করণ, ক্রয়-বিক্রয় ও বিনিময় সম্পূর্ণ  নিষিদ্ধ এবং দন্ডনীয় অপরাধ। এই নিষেধাজ্ঞা পালনের লক্ষে ভোলা জেলায় মৎস্য বিভাগ ও জেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। তারি ধারাবাহিক অভিযানে জেলায় ১২ জেলেকে জরিমানা, এক জেলের কারাদ-, ৬২ হাজার ৯০০ মিটার অবৈধ জাল ও ১২০০ কেজি ইলিশ মাছ জব্দ করা হয়েছে। জব্দকৃত জাল ভ্রাম্যমান আদালতের উপস্থিতিতে আগুনে পুরিয়ে ফেলা হয়ে  এবং জব্দকৃত মাছ স্থানীয় এতিমখানা ও মাদ্রাসায় বিতরণ করা হয়েছে।

এ সময় তিনি আরও জানান, ভোলায় জেলা মৎস্য বিভাগ, জেলা প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী কঠোর অবস্থানে রয়েছে। যারা এই নিষেধাজ্ঞা অমান্য করছে, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। মা ইলিশ রক্ষায় জনস্বার্থে মৎস্য বিভাগের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি। এদিকে, বোরহানউদ্দিনে ইলিশের প্রজনন মৌসুমে সরকারের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকারের চেষ্টাকালে মেঘনা ও তেতুলিয়া নদীতে অভিযান পরিচালনা করে ৬ জেলেকে আটক করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

বোরহানউদ্দিন উপজেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, ‘মা ইলিশ সংরক্ষণ অভিযান ২০২১’ কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে মেঘনা ও তেঁতুলিয়া নদীতে নৌ পুলিশ ও থানা পুলিশের সমন্বয়ে উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য অধিদপ্তরের দুটি পৃথক অভিযানে নিষিদ্ধ কালীন সময়ে মা ইলিশ শিকারের সময় ৬ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে মোঃ সিরাজ হাওলাদার, মোঃ আরিফ, মোঃ খোকন, মোঃ মনির এই ৪ জনকে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে ১ বছর করে কারাদন্ড ও মোঃ সাগরকে ২ হাজার টাকা জরিমানা এবং মোহাম্মদ রুহুল আমিন প্রতিবন্ধী হওয়ায় মুচলেকা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। এ সময় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুর রহমান।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন বোরহানউদ্দিন সিনিয়র উপজেলা মৎস্য অফিসার আলী আহম্মদ আখন্দ। বোরহানউদ্দিন উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ সাইফুর রহমান জানান, মা ইলিশ এর প্রধান প্রজনন মৌসুম কালে নদীতে সকল প্রকার মাছ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। তাই এই অভিযান বাস্তবায়ণে আমরা বোরহানউদ্দিন উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা মৎস্য বিভাগ যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে আসছি। এই অভিযান আগামী ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ, মা ইলিশ রক্ষায় ভোলার নদীতে জেলা প্রশাসন ও মৎস্য বিভাগের যৌথ অভিযানে জেলার ৭ উপজেলায় ২৪ টি টিমে উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ, নৌ-পুলিশ ও কোস্টগার্ড এক যোগে কাজ করছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *