গোবিন্দগঞ্জে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে রঙতুলির আঁচড়ে দেবী সাজাতে ব্যস্ত প্রতিমা শিল্পীরা

মোঃ মতিয়ার রহমান (গাইবান্ধা) গোবিন্দগঞ্জ:
সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজা। আর কয়েকদিন বাদেই দেবী দূর্গা আসছেন। দুর্গোৎসবকে কেন্দ্র করে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে বিরাজ করছে সাজ সাজ রব।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস, দুষ্টের দমন আর শিষ্টের পালনের জন্যই দেবী দুর্গার স্বর্গ থেকে আগমন ঘটেছিল মর্ত্যলোকে। এরই ধারাহিকতায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা প্রতি বছর শারদীয় উৎসব হিসেবে দূর্গাপূজা উদ্যাপন করে আসছেন। আগামী ১১ অক্টোবর সোমবার বেলতলায় ষষ্ঠী পূজার মধ্যদিয়ে শুরু হবে মূল দেবী বন্ধনা। এ অনুষ্ঠান চলবে পাঁচ দিনব্যাপী। ১৫ অক্টোবর মহাদশমীর মধ্যদিয়ে শেষ হবে প্রতিমা বিসর্জন।

এ উপলক্ষে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ১৭ টি ইউনিয়ন ও পৌরসভার প্রতিটি মন্দিরে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন প্রতিমা শিল্পীরা। শারদীয় দুর্গোৎসবকে পরিপূর্ণ রূপ দিতে মন্দিরগুলোর প্রস্ততি প্রায় শেষ পর্যায়ে। দেবীকে স্বাগত জানাতে সর্বত্র আনন্দঘন পরিবেশ বিরাজ করছে। হিন্দু সম্প্রদায়ের আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা, নারী-পুরুষসহ সব বয়সী মানুষ এ সর্ববৃহৎ শারদীয় পূজাকে সার্থক করতে প্রহর গুণছে। সবমিলিয়ে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে প্রতিটি পূজামন্ডপে।

গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন মন্ডপে ঘুরে দেখা যায়, কোথাও খড় দিয়ে প্রতিমা তৈরির কাজ শেষ করেছেন আবার কোথাও শিল্পীর সুনিপুণ হাতের ছোঁয়ায় কৃত্রিম জীবন পাচ্ছেন মা দুর্গা, লক্ষ্মী, সরস্বতী, কার্তিক, গণেশ, অসুর ও শিবমূর্তি। দিনভর পরিশ্রমে প্রতিমা শিল্পীদের দম ফেলার সময় নেই। ইতোমধ্যেই প্রতিমার মাটির কাজ শেষ পর্যায়ে। এখন ব্যাস্ত রঙ তুলির আঁচড় ও সাজসজ্জার বাকি কাজ করতে।প্রতিমা শিল্পীরা বলছেন এবার কাজকর্ম বেশী ব্যস্ততাও বেশী। মাটির কাজ শেষে এখন রং তুলির আচঁড়ে দেবী সাজাতে ব্যাস্ত সময় পার করছেন বলেও জানান তারা।

এবার ঘোড়ায় চড়ে আসবেন দেবী দুর্গা,কৈলাশে ফিরবেন দোলায়।এবার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ১২৯টি পুজা মন্ডপ ও মন্দিরে শারদীয় দুর্গোৎসব পালিত হবে।

দূর্গাপূজা শান্তিপূর্ণভাবে পালনের সুবিধার্থে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সব রকম প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। প্রতিটি পূজা মন্ডপে কমিউনিটি পুলিশ, আনসার ও পূজা উদযাপন কমিটির স্বেচ্ছাসেবকরা নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত থাকবে। এছাড়া থাকবে বিশেষ নজরদারিও।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *