চরফ্যাশনে গ্রাহকের কোটি টাকা নিয়ে উধাও ভুয়া এনজিও

সাব্বির আলম বাবু, ভোলাঃ
ভোলার চরফ্যাসন উপজেলার গ্রামগঞ্জের সহজ সরল মানুষকে ভুল বুঝিয়ে ঋণ দেয়ার নামে প্রতারনা করে ১হাজার গ্রাহক থেকে প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে উধাও হয়েছে ‘সকস বাংলাদেশ’ নামের একটি ভূয়া এনজিও। ঋণ গ্রহীতা গ্রাহকরা ঋণ নিতে এসে চরফ্যাসন শরীফপাড়া এনজিওর অফিস তালাবদ্ধ দেখে হতাশায় ক্ষুব্ধ ভুক্তভোগী গ্রাহকরা থানায় অবস্থান নেন।

ভুয়া এনজিওর খপ্পরে পরে স্বর্বশান্ত হয়ে পরেছেন উপজেলার ১ হাজার ঋণ প্রত্যাশী অসহায় মানুষ। ভুক্তভোগীদের সুত্রে জানাযায়, প্রায় ১ মাস যাবত ‘সকস বাংলাদেশ’ নামের একটি ভুয়া এনজিওর কয়েকজন মাঠ কর্মী ঋণ দেয়ার নামের পৌর সদরসহ মাদ্রাজ, আসলামপুর, জিন্নগড়, ৪টি ইউনিয়নে প্রচারনা শুরু করেন। আগ্রহী গ্রাহকদের কাছ থেকে অগ্রীম স য় বাবদ ১০ হাজার দুইশ টাকা করে উত্তোলন করেন। অফিসে কর্মী নিয়োগের জন্য ৪ জনের কাছ থেকে ৩০ থেকে ৪০ হাজার টাকা আদায় করে নেন। সদরের শরিফপাড়ার একটি বাসায় প্রত্যেক ওয়ার্ডের ১০ সদস্য নিয়ে গঠন করা কেন্দ্র প্রধানদের নিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে অফিস উদ্বোধণ করে মঙ্গলবার ঋণ দেয়ার দিন ধার্য করেন। গতকাল মঙ্গলবার সকলে বিভিন্ন ইউনিয়নে থেকে আসা ভুক্তভোগী ঋণ গ্রহীতরা এনজিওর দেয়া ঠিকানা মতে অফিসে এলে দেখেন ঘরটি তালাবদ্ধ নেই কোন সাইন বোর্ড। অফিসের সামনে পুর্বের দেয়া সাইনবোর্ডটি সরিয়ে পেলে পালিয়ে যান ওই এনজিওর কর্মীরা। পৌরসভা ৮নং ওয়ার্ডের ভুক্তভোগী নারী শাহানুর জানান, ‘সকস বাংলাদেশ’ নামের একটি এনজির দুই জন মাঠ কর্মী তাদের বাড়িতে যান। এবং জন প্রতি ১ লক্ষ টাকা করে ঋণ দিবেন এমন অজুহাতে ওই গ্রামে একটি কেন্দ্রে ১০ জন সদস্য সংগ্রহ করেন। সদস্য প্রতি অগ্রীম সঞ্চয় হিসাবে ১০ হাজার টাকা এবং সদস্য ফি বাবদ ২শ টাকা করে উত্তোলন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *