শরীয়তপু‌রে জ্বি‌ন ছাড়ানোর নামে গৃহবধু নির্যাতনের অ‌ভি‌যো‌গ

‌মোঃ মিজানুর রহমান পাহাড়, শরীয়তপুর প্র‌তি‌নি‌ধি:
শরীয়তপুর সদর উপজেলার ডোমসার ইউনিয়নের খিলগাঁও গ্রামের এক গৃহবধূকে মারধর করার অভিযোগ উঠেছে। জ্বিনের আছর আছে এমন অভিযোগ তুলে তামান্না অাক্তার(২৫) না‌মে এক গৃহবধু‌কে তার স্বামী দুলাল গাজী মারধর করেন। শুক্রবার(২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে মারধরের পর শ‌নিবার (২৫ সেপ্টেম্বর)সকালে তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তামান্না আক্তার বলেন, আমাকে শ্বশুর বাড়ির কেউ দেখতে পারেনা। সংসারের কোন কাজ-কর্মে ভুল-ভ্রান্তি হলেই আমাকে মারধর করা হয়। আর তারা অপবাদ দেন আমাকে নাকি জ্বিনে আছর করেছে। আমার ৩ বছর বয়সী একটি সন্তান রয়েছে। এসব কারণে সন্তানটিও আতঙ্কিত হয়ে অসুস্থ হয়ে পরছে।

তামান্নার বাবা তোতা মিয়া বলেন, এর আগেও ২০১৯ সালের নভেম্বর মাসের ১১ তারিখ তামান্নাকে টয়লেটে আটকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে দুলাল। তখন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতাল ভর্তি করে দীর্ঘ দিনের চেষ্টায় সুস্থ করা হয়। তামান্নার সাথে জ্বীন রয়েছে দাবি করে তাকে জ্বীনে মেরেছে বলে তখনও দাবি করেন স্বামী দুলাল গাজী। এক নারীর সাথে দুলালের অনৈতিক সম্পর্কের প্রতিবাদ করায় আমার মেয়েকে নির্যাতন করা হয়েছে। আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

তামান্না আক্তারের স্বামী দুলাল গাজীকে মু‌ঠো‌ফোন দি‌লে সে জানায়, আমি আমার স্ত্রীকে মারধর করিনি। তাকে জ্বিনে আছর করেছে। সে বিভিন্ন সময় বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়, আবার ফিরে আসে। তাকে কে মারধর করে আমি জানিনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *